মডেল অভিনেত্রী নাজনিন আক্তার হ্যাপির করা মামলা থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার মোহাম্মদ রুবেল হোসেন। অব্যাহতি চেয়ে তদন্ত কর্মকর্তার দাখিল করা প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে হ্যাপির নারাজি আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। সেই সুবাদে বিনাকসুর অব্যাহতি পেলেন রুবেল।

বুধবার বেলা বেলা ২টার দিকে ঢাকার ৫ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের  বিচারক তানজিনা ইসমাইল এ অব্যাহতি দেন। ১১টা ৪০ মিনিটে এ বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

 রুবেলের পক্ষে শুনানি করেন, ঢাকা বারের সভাপতি অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার। এবং হ্যাপির পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট আব্দুল্লাহ আল মনসুর রিপন ও অ্যাডভোকেট তুহিন হাওলাদার।
এর আগে হ্যাপির পক্ষে নারাজি দাখিল করেছিলেন তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট তুহিন হাওলাদার।
গত ১৯ মার্চ রুবেলের অব্যাহতি চেয়ে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা নারী সহায়তা ও তদন্ত বিভাগের পুলিশ পরিদর্শক হালিমা খাতুন।
২০১৪ সালের ১৩ ডিসেম্বর নাজনীন আক্তার হ্যাপি মিরপুর মডেল থানায় অভিযোগ করেন- ক্রিকেটার রুবেল হোসেনের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক হয়। বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে হ্যাপির ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক দৈহিক সম্পর্ক স্থাপন করে রুবেল।