সাকিব আল হাসান তার প্রিয় ক্রিকেটারদের একজন। সেই সাকিব আবার বাংলাদেশের অধিনায়কত্বও করছেন। তাই পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচটি কেকেআর অধিনায়ক দেখতেই পারেন। সাকিব দারুণ কিছু করলে নিশ্চয়ই খুশি হবেন গম্ভীর। একটু হয়তো দীর্ঘশ্বাসও বেরিয়ে আসবে। সাকিবকে যে ভীষণ মিস করছেন তিনি।

কেন করবেন না? কলকাতা যে দু’বার আইপিএল শিরোপার স্বাদ পেয়েছে, সেই দু’বারই দলে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন সাকিব। ২০১২ সালে কলকাতা নাইট রাইডার্সের শিরোপা জয়ের পেছনে রেখেছিলেন উল্লেখ করার মতোই অবদান। ৮ ম্যাচে ওভার প্রতি ৬.৫০ রান দিয়ে নিয়েছিলেন ১২ উইকেট। সেবার রান করেছিলেন ৯১। গত আসরে সাকিব ছিলেন আরও উজ্জ্বল। ১৩ ম্যাচে করেছিলেন ২২৭ রান ও নিয়েছিলেন ১১ উইকেট ৷ গতবারও শিরোপা জিতেছিল কলকাতা।

এবার অবশ্য নিজেকে মেলে ধরার তেমন সুযোগ পাননি। মাত্র দু’ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছেন। নিয়েছেন দুই উইকেট। দলের খারাপ ফিল্ডিং না হলে উইকেট সংখ্যা আরও বাড়তে পারত।

পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ থাকায় সাকিবের আইপিএল অধ্যায়টা সংক্ষিপ্ত হয়ে গিয়েছে। এখন খেলছেন জাতীয় দলের জার্সিতে। কিন্তু সাকিবের প্রয়োজনীয়তা ভালোভাবেই টের পাচ্ছেন কলকাতা অধিনায়ক। ফেসবুকে নিজের অফিশিয়াল পেজে গম্ভীর লিখেছেন, ‘সাকিব দলের খুবই গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিল। এখন আমাদের দলের কম্বিনেশন পরিবর্তন করতে হবে। এখানে এই নিয়ে ভাবার দু’দিন সময় রয়েছে। অবশ্যই ওকে আমরা দলে চাই। ব্যাটিং-বোলিংয়ে দলের জন্য ও বিরাট সম্পদ।’