বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশের বিপক্ষে লড়বে ভারত।  মাঝখানে আর মাত্র একটি দিন।  বাংলাদেশকে নিয়ে ক্রিকেট বিশ্লেষক ও সমর্থকরা মনে করেন, ভারতকে হারানো বাংলাদেশের জন্য অসম্ভব কিছু নয়।  ভারতকে হারানোর অতীত অভিজ্ঞতাও রয়েছে বাংলাদেশের।  তবে যেসব কারণে জিততে পারে বাংলাদেশ তার মধ্যে-

১. বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান সেরা খেলাটা এখনো খেলেননি। নিশ্চয় ভারতের বিরুদ্ধে তা খেলবেন।

২. ভারতের বিরুদ্ধে মাশরাফির ভয়ঙ্কর বল।  ২০০৭ বিশ্বকাপের ক্ষত এখনো শুকায়নি।  ৩৮ রানে চার উইকেট নিয়ে হারিয়েছিলেন ভারতকে।

৩. ভারতের আরেক আতঙ্ক নতুন তুর্কি দ্রুতগতির বোলার তাসকিন আহমেদ। ভারতের বিপক্ষে মাত্র ২ ম্যাচ খেলে উইকেট পেয়েছেন ৭টি।  গড়ে ৬.১৪ রান দিয়ে ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।

৪. ভারতকে সমানে পেলে তেতে যান তামিম, মুশফিকও (ভারতের বিপক্ষে গড় ৪২)।  সেরা ব্যাটিংটা করেন ভারতের বিপক্ষে।

৫. ভারতের বিপক্ষে খেলা ১১টি একদিনের ম্যাচে মাহমুদুল্লার ব্যাটিং গড় ৪৯, যিনি এ মুহূর্তে ফর্মের তুঙ্গে।

৬. দারুণ ফর্মে রয়েছেন স্টাইলিস্ট সৌম্য সরকার, হার্ডহিটার সাব্বির রহমান, স্পিড স্টার রুবেল হোসেন।

৭. এরই মধ্যে ২০১৫ বিশ্বকাপের টার্গেট অর্জিত হয়েছে।  তাই হারানোর কোনো বাড়তি চাপ নেই, পুরো টিমে টাইগারদের পাবারই আকাঙ্ক্ষা।

৮. বাংলাদেশকে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করে ভারতীয়রা দলের মধ্যে হারানোর এটা জেদ তৈরি করে দিয়েছেন।  ২০০৭ সালের বিশ্বকাপ এবং ২০১২ সালের এশিয়াকাপে ভারতকে হারানোর সুখময় অনুপ্রেরণা।

এসব বিফলে যাবার নয়।  অপেক্ষা করুন।  আরেকটি বিজয় হাতছানি দিচ্ছে টাইগারদের।  ১৯ মার্চের যুদ্ধে ব্যাট-বলে প্রমাণ দেবে বাংলার দামালরা।

anamul_640