দুর্নীতির দায়ে ফিফার শীর্ষস্থানীয় সাত কর্মকর্তা আটক হলেও ফিফা প্রেসিডেন্ট নির্বাচন পূর্ব-ঘোষিত সময়েই অনুষ্ঠিত হবে। শুক্রবার সুইজারল্যান্ডের জুরিখে ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার ২০৯ সদস্য তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে সভাপতি নির্বাচন করবেন।

নির্বাচনে জর্দানের ৩৯ বছর বয়সী প্রিন্স আলি বিন আল হুসাইন ১৯৯৮ সাল থেকে ফিফা সভাপতির দায়িত্ব পালন করা সেফ ব্ল্যাটারের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। নানা সমালোচনা সত্ত্বেও ব্ল্যাটার টানা পঞ্চমবারের মতো ফিফা সভাপতির চেয়ারে বসতে যাচ্ছেন বলে অনেকের ধারণা। আবার অন্য পক্ষ মনে করছেন, দুর্নীতির ঘটনায় ব্ল্যাটার অপেক্ষাকৃত তরুণ প্রিন্স আলির কাছে মসনদ হারাবেন।

বুধবার ভোরে ঘুষ ও অর্থ কেলেংকারির ঘটনায় জুরিখের বিলাসবহুল হোটেল থেকে ফিফা সাত কর্মকর্তা গ্রেফতার হওয়ার দুদিন পর এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের তদন্ত সংস্থা এফবিআইয়ের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সুইজারল্যান্ড পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে।

এদিকে দুর্নীতির ঘটনায় উয়েফা সভাপতি মিশেল প্লাতিন সেফ ব্ল্যাটারকে ফিফা সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দেয়ার অনুরোধ করলেও সেটি নাকচ করে দেন এই সুইস ভদ্রলোক। দুর্নীতির ঘটনায় ফিফা কর্মকর্তাদের আটক হওয়ার ঘটনাকে সংস্থাটির জন্য ‘কালো দিন’ উল্লেখ করে তিনি ফিফাকে আরো শক্তিশালী করার প্রতিশ্রুতি দেন। পাশাপাশি ঘটনাকে তিনি ‘লজ্জাজনক’ ও ‘বিপর্যয়কর’ বলে উল্লেখ করেন।

বুধবার সাত কর্মকর্তা গ্রেফতার হওয়ার পর আগামী ২০৮ সালের রাশিয়া এবং ২০২২ সালের কাতার বিশ্বকাপ আয়োজন নিয়ে কোটি কোটি ডলার আর্থিক অনিয়ম হয়েছে বলে ফের অভিযোগ উঠে। এটি নিয়ে ফের তদন্ত শুরু করেছে সুইস পুলিশ।

শুক্রবার ভোট গ্রহণ শুরু হওয়ার আগে দুই সভাপতি পদপ্রার্থী নিজের মতামত তুলে ধরার জন্য ১৫ মিনিট করে সময় পাবেন।

ভোটগ্রহণ ও নির্বাচন পদ্ধতি: ফিফার সদস্যভূক্ত ২০৯ দেশের ফেডারেশনের ভোটে সভাপতি নির্বাচন করা হবে। ফলে ভোটাধিকার প্রয়োগে ইংল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার মতো পরাশক্তি যেমন গুরুত্বপূর্ণ ঠিক তেমনি নাইজেরিয়া, কেনিয়ার মতো আফ্রিকান দেশগুলোও সমান গুরুত্বপূর্ণ। ইলেকট্রনিক পদ্ধতির পরিবর্তে ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। প্রত্যেক সদস্য গোপন ব্যালট পেপারের মাধ্যমে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে সেফ ব্ল্যাটার ও প্রিন্স আলি হুসাইনের ভাগ্য নির্ধারণ করবেন।

কোনো প্রার্থী ১০৫ বা তার চেয়ে বেশি ভোট পেলেই তিনি আগামী ৪ বছরের জন্য ফিফার সভাপতির চেয়ারে বসবেন। সদস্য দেশের চেয়ে যদি ব্যালট পেপারের সংখ্যা বেশি হয় তবে ভোট বাতিল ঘোষণা হবে এবং পুনরায় ভোটগ্রহণ শুরু হবে।

ফিফার সেক্রিটারি জেনারেল জেরোমি ভালকে তার সহকারীদের নিয়ে পুরো ভোট-প্রক্রিয়া তদারকি করবেন। পেপার বণ্টন ও ব্যালট পেপার গণনার পাশাপাশি বিজয়ী প্রার্থীর নামও তিনি ঘোষণা করবেন।

প্রসঙ্গত, ফিফা সভাপতি নির্বাচনে প্রথমে চারজন প্রার্থী থাকলেও লুইস ফিগো ও ফন প্রাগ নিজেদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেয়ায় প্রিন্স আলিকেই একমাত্র প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছেন সেফ ব্ল্যাটার।