হোয়াইট ওয়াশের লজ্জা এড়ানোর ম্যাচেও হারলো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। শনিবার নেলসনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে ৮ উইকেটে হেরেছে টাইগাররা।
বাংলাদেশের দেয়া ২৩৭ রানের লক্ষ্য কেন উইলিয়ামসের ৯৫ রানের ইনিংসে সহজ হয়ে যায় নিউজিল্যান্ডের। তবে শুরুতেই উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। কিউই শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন মুস্তাফিজই। নিজের প্রথম ওভারেই এলবিডব্লিউ এর ফাঁদে ফেলেন লাথামকে। ইনজুরির কবলে পড়ে মাঠ ছাড়েন গাপটিল। এরপর নিল ব্রুম ও কেন উইলিয়ামসন দলকে টেনে নিতে থাকেন।
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আবারো বাংলাদেশকে ব্রেকথ্রু এনে দেন মুস্তাফিজুর রহমান। ইনিংসের ৩৫ তম ওভারে ভয়ংকর হয়ে উঠা নিল ব্রুমকে আউট করেন এই কাটার মাস্টার। মাশরাফির তালুবন্দি হওয়ার আগে সেঞ্চুরি থেকে মাত্র তিন রান দূরে ছিলেন নিল ব্রুম। তবে শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেট হাতে রেখে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড।
এর আগে টস জিতে আগে ব্যাট করে ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৩৬ রান তুলেছে সফরকারীরা। নেলসনের স্যাক্সটন ওভালে তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েসের ১০২ রানের ওপেনিং জুটিতে দুর্দান্ত সূচনা পায় বাংলাদেশ। কিন্তু মাঝের ধ্বসে এলোমেলো হয়ে পড়ে টপঅর্ডার। ১৭৯ রানে সাত উইকেট হারিয়ে বসে। শেষ দিকে নুরুল হাসান সোহানের ৪৪ ও মাশরাফি বিন মর্তুজার ব্যাটে আসা ১৮ রানের ইনিংসে মাঝারিমানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ।
এর মাঝে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৩৪তম অর্ধশতক তুলে নেন ওপেনার তামিম ইকবাল। দলীয় ১০২ রানে প্রথম উইকেট হিসেবে ইমরুল কায়েসের বিদায়ের পর বালুর বাধের মতো ভেঙে পড়ে বাংলাদেশের টপঅর্ডার।
মিশেল স্যান্টনারের বলে ইমরুল কায়েস এগিয়ে এসে মারতে গেলে ব্যাটের কানায় লেগে বল হাওয়ায় ভেসে ওঠে। পয়েন্ট থেকে দৌড়ে এসে গালি অঞ্চলে দুর্দান্ত ক্যাচ নেন নেইল ব্রুম। আউট হওয়ার আগে পাঁচটি চার ও একটি ছক্কায় ৬২ বলে ৪৪ রান করেন এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।
ইমরুলের বিদায়ের সাব্বির রহমান উইকেটে এসে আক্রমণাত্মক মেজাজে ব্যাট চালাতে থাকেন। কিন্তু বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে পারেননি এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান। চারটি চারের সাহায্যে ১৪ বলে ১৯ রান করে সাজঘরে ফিরে যান তিনি।
দলীয় ১২৭ রানের মাথায় ম্যাট হেনরির লেগ স্ট্যাম্পের কিছুটা বাইরের শর্ট বাউন্সারটি ব্যাটের কানায় ঘষে যায় উইকেটরক্ষকের গ্লাভসে।  মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ উইকেটে এসে বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি। ১৩৩ রানের মাথায় সাত বলে তিন রান করে টিম সাউদির শর্ট বাউন্সারটি পুল করতে গিয়ে শর্ট লেগে জেমস নিশামের হাতে ক্যাচ দেন।
জেমস নিশামের বলে ইমরুলের পথ অনুসরণ করেন তামিম। অফস্টাম্পের উপর করা শর্ট বাউন্সার অন সাইডে ঘোরাতে গিয়ে ডিপ পয়েন্টে নেইল ব্রুমের হাতে ধরা পড়েন। আউট হওয়ার আগে ৮৮ বলে ৫টি চারের সাহায্যে ৫৯ রান করেন এ ওপেনার।
সাকিব আল হাসান চেষ্টা চালান বিপর্যয় থেকে বাংলাদেশকে টেনে তুলতে। ৩৫ বলে ১৮ রান করে সাকিব দুর্ভাগ্যজনক রান আউট হয়ে গেলে সে আশাও থেমে যায়। সাকিবের বিদায়ের পর মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত (১১) ও তানবীর হায়দার (৩) বিদায় নিলে লেজ বেরিয়ে যায় বাংলাদেশের।
নুরুল হাসান সোহানের ৩৯ বলে ৪৩ ও মাশরাফি বিন মর্তুজার ১৮ বলে ১৪ রানের বাউন্ডারিহীন ইনিংসে মাঝারি মানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ।