শুরুর দিকে টানা ৫ ম্যাচ হার। এরপর বাকি ৯ ম্যাচের ৮টিতে জিতে গ্র“প পর্বের দ্বিতীয় দল হিসেবেই প্লে অফ নিশ্চিত করে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। কিন্তু এখানেও যে কঠিন প্রতিপক্ষ! একেবারে চেন্নাই সুপার কিংস। তবে মুম্বাইর ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে পাত্তাই পেলো না চেন্নাই। মহেন্দ্র সিং ধোনির দলকে ২৫ রানে হারিয়ে ফাইনালে উঠে গেলো মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। স্বাগতিকদের করা ১৮৭ রানের জবাবে ১৯ ওভারে ১৬২ রানেই অলআউট হয়ে যায় চেন্নাই সুপার কিংস। লংকান পেসার লাসিথ মালিঙ্গা দুর্দান্ত বোলিং করেন। ৪ ওভার বোলিং করে ২৩ রান দিয়ে তুলে নেন ৩টি উইকেট। সঙ্গে বল হাতে জ্বলে উঠেছিলেন বিনয় কুমার আর হরভজন সিং। তারা দু’জন ২৬ রান করে দিয়ে ২টি করে উইকেট লাভ করেন। জগদিশ সুচিথ আর ম্যাকক্লেগান ১টি করে উইকেট নেন। ১৮৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই মালিঙ্গার তোপের মুখে পড়তে হয় চেন্নাইকে। রানের খাতা খোরার আগেই ওপেনার ডোয়াইন স্মিথকে এলবিডব্লিউতে আউট করেন তিনি। মাইক হাসি আর ডু প্লেসিস ৪৬ রানের জুটি গড়ে বিপর্যয় সামাল দেন। এ সময় হাসিকে ফিরিয়ে দেন বিনয় কুমার। ৩৪ বলে সর্বোচ্চ ৩৫ রান করেন ডু প্লেসিস। তাকে ফিরিয়ে দেন সুচিথ। এরপর দুই বিপজ্জনক ব্যাটসম্যান রায়না আর ধোনিকে ফেরান হরভজন সিং। শেষ দিকে চেন্নাইর লেজ মুড়িয়ে দেয়ার কাজটি ভালোই করে দেখালেন মালিঙ্গা। এর আগে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ল্যান্ডল সিমন্সের ৫১ বলে ৬৫ আর কিয়েরণ পোলার্ডের ১৭ বলে ৪১ রানের ঝড়ো ইনিংসের কল্যাণে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৮৭ রান করে মুম্বাই। পার্থিব প্যাটেল ২৫ বলে করেন ৩৫ রান। চেন্নাইর হয়ে ডোয়াইন ব্র্যাভো নেন ৪০ রানে ৩ উইকেট। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের জয় এবং এই হারের ফলে চেন্নাইর বিদায় ঘটে যায়নি। দ্বিতীয় প্লে অফ থেকে যে জিতবে তাকে খেলতে হবে চেন্নাইয়ের সঙ্গে।