বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের অবিস্মরণীয় জয়ে বিজয় মিছিলের জন্য ১২ ঘণ্টা শিথিল রাখার পর চলমান হরতাল কর্মসূচি শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত বাড়িয়েছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট।

মঙ্গলবার বিকেলে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে হরতাল বাড়ানোর এই ঘোষণা দেওয়া হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ২০ দলীয় জোটের উদ্যোগে চলমান অবরোধ কর্মসূচির পাশাপাশি আজ (মঙ্গলবার) সন্ধ্যা ৬টা থেকে আগামী ১৩ মার্চ শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত দেশব্যাপী শান্তিপূর্ণ চলমান সর্বাত্মক হরতাল কর্মসূচি বর্ধিত করা হলো।

এছাড়া ১২ মার্চ বৃহস্পতিবার সারাদেশের সকল জেলা, উপজেলা, পৌরসভা ও থানা পর্যায়ে এবং দেশের সকল মহানগরের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে গণমিছিল কর্মসূচি পালনেরও ঘোষণা দেওয়া হয় বিবৃতিতে।

আরো বলা হয়, ‘ইতোমধ্যে সরকার গণ দাবি মেনে না নিলে আমরা আবারো আগামী ১৫ মার্চ রোববার থেকে দেশব্যাপী হরতালসহ আরো কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো।’

সালাহউদ্দিন আহমেদের স্বাক্ষর করা  বিবৃতিতে আরো বলা হয়, নিয়মতান্ত্রিক ও গণতান্ত্রিক পন্থায় আন্দোলনের সকল পথ বন্ধ করে দিয়ে  সরকার প্রকারান্তরে অগণতান্ত্রিক শক্তিকেই আহবান জানাচ্ছে।নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকারের বিনিময়ে আওয়ামী লীগ শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বন্দুকের নলের মধ্যেই রাজনৈতিক সংকটের সমাধান খুঁজছে। কম গণতন্ত্র, উন্নয়ন বেশি এবং আগে উন্নয়ন, পরে গণতন্ত্র ইত্যাদি আইয়ুব খান মডেলের আওয়ামী চর্চায় দেশে গণতন্ত্র ও উন্নয়ন দু’টোই অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে।

নিয়মতান্ত্রিক ও গণতান্ত্রিক পন্থায় আন্দোলনের সকল পথ বন্ধ করে দিয়ে সরকার প্রকারান্তরে অগণতান্ত্রিক শক্তিকেই আহবান জানাচ্ছে বলেও বিবৃতিতে দাবি করে বলা হয়, দেশের সচেতন মহল বিশ্বাস করে-আওয়ামী লীগ অবৈধ ক্ষমতা ও দু:শাসন প্রলম্বিত করার লক্ষ্যেই জঙ্গিবাদের জুজু’র ভয় দেখাচ্ছে দেশবাসী ও আন্তর্জাতিক মহলকে। দেশে জঙ্গিবাদের কৃত্রিম জন্মদাতাই আওয়ামী লীগ। জনগণের সাথে প্রতারণা করে ক্ষমতায় টিকে থাকার কুমানসে আওয়ামী লীগ এখন প্রতিদিনই জঙ্গিবাদের ‘টেস্টটিউব বেবী’র জন্ম দিচ্ছে।

দেশের জনগণকে জুলুম নির্যাতনের আওয়ামী বন্দিশালা থেকে মুক্ত করার লক্ষ্যেই চলমান গণআন্দোলন বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলেও মন্তব্য করা হয় বিবৃতিতে।

চলমান অবরোধ-হরতাল এবং বৃহস্পতিবারের গণমিছিল কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে পালন করতে বিএনপি, এর অঙ্গ, সহযোগী সংগঠন এবং ২০ দলীয় জোটের সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মীসহ দেশবাসীকে ২০ দলীয় জোটনেতা খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে উদাত্ত আহবান জানানো হয়।

সুত্র : bangladesh24