সত্যিকার অর্থেই প্রযুক্তি দুনিয়ায় আলোড়ন তুলতে সক্ষম হয়েছে স্যামসাং। তাদের গ্যালাক্সি এস৬ এবং এস৬ এজ স্মার্টফোন দুটো এখন সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু। এখন এই দুটো যন্ত্রের একটি কেনার প্রস্তুতি নেবেন কিনা, তা নিয়ে অনেকেই সংশয়ে রয়েছেন। কারণ বাজারে অন্যান্য ব্র্যান্ডের দারুণ সব স্মার্টফোন রয়েছে। এখানে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, যে ৫টি কারণে এই ফোনের একটি কিনতে পারেন। তবে এস৬ এজকেই বেশি প্রাধান্য দিয়েছেন তারা।
১. প্রথমেই গতির বিষয়টি বিবেচনা করতে পারেন। স্যামসাংয়ের নিজের এক্সিনস ৭৪২০ চিপসেট ব্যবহার করা হচ্ছে। এর মাল্টি-কোর প্রসেসর অ্যাপলের এ৮ চিপ এর চেয়ে ৫৬ শতাংশ বেশি দ্রুত। 



এটি কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮১০ চিপের চেয়ে ১৫ শতাংশ বেশি দ্রুততর।
২. এস৬ এজ এর দুই পাশের বাঁকানো পর্দা কিছু বেশি সুবিধা দেবে এস৬ এর চেয়ে। নোটিফিকেশন, সময় এবং সাম্প্রতিক যোগাযোগগুলো গোটা পর্দা না ঘেঁটেই দেখে নিতে পারছেন। এর বাঁকানো অংশের হালকা একটা আলো গোটা পর্দায় ছড়িয়ে থাকবে যা বিশেষ কয়েকটি নম্বর প্রদর্শন করবে।
৩. ২০১৪ সালের স্মার্টফোনের সবচেয়ে ভালো ক্যামেরা দিয়েছিল আইফোন ৬ ও ৬ প্লাস এবং গ্যালাক্সি নোট ৪। নতুন ফোনটিতে সনি আইএমএক্স২৪০ এর ১৬ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। নোট ৪-এ এই ক্যামেরা থাকলেও নতুন ফোন দুটোতে আরো উন্নত এফ১.৯ লেন্স যুক্ত হয়েছে।
৪. এর আগের সময় নষ্ট করা ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার আর দেওয়া হয়নি। তবে রয়েছে টাচ ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার। আঙুলের ছাপ রেকর্ড করে রাখবে এটি।
৫. স্যামসাংয়ের মোবাইল পেমেন্ট সিস্টেম চালু থাকবে দুই ফ্ল্যাগশিপ ফোনে। অ্যাপলের পেমেন্ট ব্যবস্থার পর স্যামসাং এ কাজটি করলো। তবে আপাতত ম্যাগনেটিক-স্ট্রিপ টেকনলজি আমেরিকাসহ বেশ কয়েকটি দেশে প্রচলিত। ওইসব দেশে মোবাইলের মাধ্যমেই পণ্যের কেনাকাটা সারতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।

সূত্র : ফক্স নিউজ