আগামী অর্থবছরের বাজেট সামনে রেখে আয়োজিত এক পরামর্শক সভায় তামাকজাত পণ্যের করের কথা বলতে গিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেছেন,

আমাদের দেশে বিনোদনের মাধ্যমের অভাব রয়েছে মন্তব্য করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, সিগারেট ফোঁকাই দেশে একটা বিনোদনের মাধ্যম।’
রাজধানীর একটি হোটেলে আজ মঙ্গলবার সকালে এ সভার আয়োজন করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) ও এফবিসিসিআই।
সভায় বক্তব্যের একপর্যায়ে তামাকজাত পণ্যের করের প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, আগে আমরা টোব্যাকো কোম্পানির সঙ্গে বসে আলাপ আলোচনা করে একটা সমঝোতার মাধ্যমে কর ঠিক করতাম। আমরা বিভিন্ন স্তর করে দিতাম যে, এটা এমন হবে, এই স্তরে অত শুল্ক হবে। এবার আর আমরা এমনটা করব না। এটা বাজারের ওপর ছেড়ে দেওয়া উচিত। অন্যান্য দেশে যেভাবে তামাকের ওপর কর ধার্য করা হয়, আমরাও সেভাবে করব। এরপর তিনি বলেন, তামাক অত্যন্ত ক্ষতিকর জিনিস। তবে দেশে এটি জনপ্রিয়।
অর্থমন্ত্রী বলেন, ১৬ কোটি মানুষের দেশে কর দেন মাত্র ১১ লাখ। টিআইএন আছে ১৮ থেকে ১৯ লাখ মানুষের। আমাদের বক্তব্য হলো, বিভিন্ন করের আওতায় আরও ব্যাপকসংখ্যক মানুষকে নিয়ে আসা। ২০০৯ সালে বলেছিলাম, আমাদের উচিত ৫০ শতাংশ মানুষকে করের আওতায় নিয়ে আসা। কিন্তু সেটা হচ্ছে না।