উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ ও গবেষণা পরিচালনার জন্য গম গবেষণা কেন্দ্র ও ভুট্টা শাখাকে বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউটে রূপান্তর করতে প্রয়োজনীয় বিধান প্রণয়নে জাতীয় সংসদে বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট বিল ২০১৭ উত্থাপন করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সংসদ অধিবেশনে কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বিলটি উত্থাপন করেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে বিলটি উত্থাপনের পর তা অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়েছে। কমিটিকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে সংসদে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। দিনাজপুরের সদর উপজেলায় এ ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে প্রণীত বিলটি গত বছরের ৩০ মে মন্ত্রিসভায় অনুমোদন দেওয়া হয়।

বিলে গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠা, এর কার্যালয় ও কেন্দ্র, ইনস্টিটিউট কার্যাবলী, কাউন্সিলের নির্দেশনা প্রতিপালনসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিধানের প্রস্তাব করা হয়েছে। বিলে ১২ সদস্য বিশিষ্ট ইনস্টিটিউটের বোর্ড গঠনের প্রস্তাব করা হয়েছে। যেখানে বোর্ডের কার্যাবলী, বোর্ডের সভা, মহাপরিচালক নিয়োগ, জনবল কাঠামো, পরিচালক, তহবিল গঠন, বাজেট, হিসাবরক্ষণ ও নিরীক্ষা, ঋণগ্রহণের ক্ষমতা, কমিটি গঠন, প্রতিবেদন দাখিল, চুক্তি সম্পাদন, গবেষক ও প্রযুক্তিবিদ নিয়োগ, ফেলোশিপ প্রদান, ক্ষমতা অর্পণ, বিধি-প্রবিধিমালা প্রণয়নের ক্ষমতাসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিধানের উল্লেখ করা হয়েছে।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সংবলিত বিবৃতিতে কৃষিমন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বাংলাদেশ গম ও ভুট্টা গবেষণা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। মেক্সিকোতে অবস্থিত আন্তর্জাতিক ভুট্টা ও গম গবেষণা কেন্দ্রের আদলে এটা করা হবে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধীনে গম গবেষণা কেন্দ্র এবং ভুট্টা শাখা বিলুপ্ত হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।