শিশুদের সহিংসতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ সেভ দ্য চিলড্রেনের
images
সংবাদপত্রের এক জরিপ অনুযায়ী বছরের শুরু থেকে ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত হরতাল বা অবরোধের ১১ জন শিশু নিহত এবং ১২ জন শিশু আহত হয়েছে। অপরদিকে রাজনৈতিক শোভাযাত্রা এবং যানবাহন আক্রমণে শিশুদের ব্যবহার করা হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে শিশুদের উপর চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতা ও সহিংসতার ক্ষতিকর প্রভাব নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সেভ দ্য চিলড্রেনের।
মঙ্গলবার সেভ দ্য চিলড্রেনের কান্ট্রি ডাইরেক্টর মাইকেল ম্যাকগ্রাথ এক বিবৃতিতে বলেন, চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতার ব্যাপক প্রভাব পড়ছে শিক্ষাব্যবস্থায়। গত দেড় মাস ধরে স্কুলগুলো রবিবার থেকে বৃহসপতিবার বন্ধ থাকছে। এতে করে শিশুরা ক্লাস করতে পারেনি এবং অনেক শিশুর পরীক্ষা পিছিয়েছে বারবার।
মাইকেল ম্যাকগ্রাথ আরো বলেন, শিশুদের নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য আর সার্বিক কল্যাণের উপর তাত্ক্ষণিক প্রভাবের বাইরেও শিশুদের উপর সহিংসতার মানসিক প্রভাব নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন। গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব শিশু ভয়ের পরিবেশে বাস করে তারা সহিংসতার সংস্পর্শে অনেকভাবে বদলে যেতে পারে। নিরবচ্ছিন্ন ভীতি আর এই ভীতির সাথে মানিয়ে নেয়ার স্নায়বিক ও শারীরবৃত্তীয় প্রচেষ্টা শিশুদের মস্তিষ্কের বিকাশ বাধাগ্রস্ত করে আর ক্ষতিগ্রস্ত করে তাদের শারীরিক, আবেগিক, আচরণগত, বুদ্ধিবৃত্তিক আর সামাজিক কার্যকারিতা।
সেভ দ্য চিলড্রেন দেশের সকল শিশুর শারীরিক ও মানসিক সুস্বাস্থ্যের সুরক্ষাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার ও তাদের শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ নিশ্চিত করতে চলমান সংকটের সাথে সমপৃক্ত সকল পক্ষের কাছে আহ্বান জানায়।
অন্যদিকে রাজনৈতিক সহিংসতায় দেশের অচলাবস্থা অবসানের দাবি জানিয়েছে যুব প্লাটফরম ‘ইয়ুথ ফর থ্রিডি’ নামের একটি সংগঠন। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এ দাবি জানান। ‘সহিংসতা-অচলাবস্থার অবসান চাই; শিক্ষা ও কাজের নিশ্চয়তা চাই’  এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে তারা মানববন্ধনে অংশ নেন। মানববন্ধনে ইয়ুথ ফর থ্রিডি-এর সভাপতি রাজেশ রায়, সাধারণ সম্পাদক মোকছেদুল মোমিনসহ অন্য নেতৃবৃন্দ এবং যুবসমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।