লিকুইড মেটাল বডির নতুন একটি স্মার্টফোন উন্মোচন করেছে টুরিং

0
191

লিকুইড মেটাল বডির নতুন একটি স্মার্টফোন উন্মোচন করেছে টুরিং রোবটিক ইন্ড্রাস্ট্রি। টাইটেনিয়াম এবং স্টিলের মতো ধাতবে তৈরি বাজারের অন্যান্য স্মার্টফোনগুলোর চেয়ে এটি মজুবত। তাই স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা যদি তাদের পণ্যের নিরাপত্তার বিষয়টিকে অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে তবে নি:সন্দেহ টুরিং স্মার্টফোনটি তাদের পছন্দের একটি বলছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান।

পণ্যটিতে লক্ষণীয় বৈশিষ্ট্য বিকেন্দ্রীভূত অনুমোদন প্রযুক্তি এবং অতি শক্ত বডি যা আঘাত সহনশীল।

ব্যবহারকারীদের যোগাযোগ সুবিধায় টুরিং ফোনে নিজস্ব সার্ভার-ফ্রি এনক্রিপটেড কমিউনিকেশন সিস্টেম রয়েছে এবং ফিঙ্গারপ্রিন্টের মাধ্যমে এটি লক করা যায়।

প্রতিষ্ঠানের প্রতিশ্রুতি এই পদ্ধতিতে ব্যবহারকারীদের মধ্যে কথাবার্তা সবসময় নিরাপদ হবে। এছাড়া টুরিং ফোনগেুলো একে অপরের আইডেন্টিটি সরাসরি প্রমান করতে সক্ষম।

এতে মাস্টার পাবলিক কি এবং একটি ইউনিক প্রাইভেট কি যুক্ত করা হয়েছে।

ডিভাইসটির মূল ফিচারটি হলো লিকুইডমর্ফিনে তৈরি যা স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের কাছে প্রমান করে এটি স্টিল বা টাইটেনিয়ামের তুলনায় সত্যিই মজবুত।

প্রতিষ্ঠানের দাবি, আকস্মিকভাবে ব্যবহারকারীর হাত থেকে যেভাবেই পড়ুক না কেন সেই আঘাত সহ্য করার ক্ষমতা রাখে এটি।

দৃঢ় বডি এবং নিরাপত্তা সংক্রান্ত ফিচারের পাশাপাশি স্মার্টফোনটিতে রয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৮০১ প্রসেসর, ৩ জিবি র‌্যাম এবং ৫.৫ ইঞ্চি পর্দা্, ৩০০০ এমএএইচ ব্যাটারি। এসব বৈশিষ্ট্য নির্ধারণ করায় টিউরিং ফোন দারুণ প্রতিযোগিপূর্ণ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এছাড়া এর অন্যান্য সুবিধায় আছে ডুয়্যাল ফ্ল্যাশের ৮ এমপি ফ্রন্ট এবং ১৩ এমপি ব্যাক ক্যামেরা। প্রত্যাশা করা হচ্ছে এর ৬৪ জিবি এবং ১২৮ জিবি পাওয়া যাবে। ভারতের বাজারে পণ্য দুটির মূল্য হবে যথাক্রমে প্রায় ৪৫ হাজার এবং সাড়ে ৫৩ হাজার রুপি। আগষ্টের শেষে এটি পাওয়া যাবে বলে নিশ্চিত করেছেন প্রতিষ্ঠানের মুখপাত্র।

টুরিং ফোনটিকে নিয়ে এখন সম্পূর্ণভাবে বিশ্বাস করা হচ্ছে স্মার্টফোনের বাজারে এটি নতুন প্রবর্তক হিসেবে পরিচিতি পাবে।

অবশ্য অসাধারণ এসব বৈশিষ্ট্যের মধ্যে ওয়াটারপ্রুফ বৈশিষ্ট্যটি নেই। যদিও এটি বর্তমান অবস্থা তাই আগামীতে টুরিং রোবটিক ইন্ড্রাস্ট্রি এদিকে নজর দেবে এমন প্রত্যাশা আলোচকদের।