ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সফরে আঞ্চলিক কানেকটিভিটি অগ্রাধিকার পাবে বলে জানিয়েছেন আবুল হাসান মাহমুদ আলী। শুক্রবার সকালে মোদির ঢাকা সফর উপলক্ষে  এক সংবাদ সম্মেলনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন, তিনি স্থলসীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়ন করবেন। তিনি কথা রেখেছেন। এটা সবচেয়ে বড় পাওয়া। নরেন্দ্র মোদি আসার পর স্থলসীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়ন করতে দুই দেশ একটি সম্মতিপত্রে অনুস্বাক্ষর করবে।

তিনি বলেন, তবে নরেন্দ্র মোদির এবারের সফরে তিস্তা চুক্তি হবে না। এমনকি দ্বি-পক্ষীয় বৈঠকের কার্যতালিকায়ও এ ইস্যু নেই। তবে এ নিয়ে আলোচনা চলছে। তিস্তা চুক্তির জন্য আরো ধৈর্য ধরতে হবে বলে জানান তিনি।

বহু প্রতীক্ষিত স্থলসীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং নরেন্দ্র মোদি সম্মতিপত্রে স্বাক্ষর করবেন। এ ছাড়া দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী একটি যৌথ ইশতেহারেও স্বাক্ষর করবেন। এরপর ছিটমহল বিনিময় শীঘ্রই শুরু হবে। এ বিষয়ে দুই দেশই দুই দেশকে তালিকা দেবে। এর পর দুই দেশের কমিটি মিলে মাঠপর্যায়ে কাজ করবে।