বিশ্ববিদ্যালয় এর সাথে যুক্ত কিছু মনোবিজ্ঞানী এবং মেডিকেল ডাক্তারদের একটি দল সোমবার সকালে ঘোষনা করেছেন, তারা প্রমাণ করতে পেরেছেন যে মৃতুøর পরেও জীবনের কিছু ধরণ আছে। চিকিৎসা বিজ্ঞানের তদারকির মাধ্যমে মৃত্যু নিয়ে কিছু অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে একটি গবেষনার পর তারা এই তথ্যটি ঘোষণা করেছেন। এই গবেষণায় দেখা গেছে একজন মানুষকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের মাধ্যমে মেরে ফেলার ২০ মিনিট পরেও তাকে আবার জীবনে ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

গত চার বছর যাবৎ ৯৪৪ জনের উপর এই গবেষণা চালানো হয়। এই পদ্ধতিতে এপিনেফ্রিন এবং ডাইমেথিলট্রিপ্টামিন ঔষধ এর মিশ্রণের মাধ্যমে মেরে ফেলা হয় এবং কোন প্রকার ক্ষতি ছাড়াই আবার মৃত সেই ব্যক্তিকে তার স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়। একজন মানুষের উপর গবেষণার সময় দেখা যায়, অস্থায়ীভাবে শরীরের ভেতরে প্রবেশ করানো সেই ঔষধ এর মিশ্রণকে ‘ওজোন’ এর মাধ্যমে ফিল্টার করে আবার জীবন ফিরিয়ে আনতে প্রায় ১৮ মিনিট সময় লাগে। দীর্ঘ সময়ের এই গবেষণার কাজকে সফল করতে সহযোগীতা করেছে কার্ডিওপাল্মোনারী রিসাইটেশন (সিপিআর) মেশিন যেটি অটোপালস মেশিন হিসেবে পরিচিত।