মানুষ হত্যা করাই বিএনপি-জামায়াতের কাজ বলে অভিযোগ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

রোববার (২২ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ অভিযোগ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাদের কাজই হলো মানুষ হত্যা করা। তারা ক্ষমতায় এসে সাধারণ মানুষকে তো মেরেছেই, গ্রেনেড মেরে আমাদের সংসদ সদস্যকেও হত্যা করেছে। এখন ক্ষমতায় না থাকলেও তাদের সে হত্যাযজ্ঞ চলছে। পেট্রোল-ককটেল মেরে তারা মানুষ পুড়িয়ে মারছে।

বিএনপি-জামায়াত ইসলামের নামে নাশকতা ও মানুষ হত্যা চালিয়ে যাচ্ছে অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ যখন সারা বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল হয়ে উঠছে তখনই আগুন দিয়ে সম্পূর্ণ জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে বিএনপি জামায়াত। এটা দুর্ভাগ্যজনক। তারা বিশ্ব ইজতেমা ও ঈদ-ই-মিলাদুন্নবীর সময়ও হরতাল-অবরোধ করে মানুষ হত্যা করেছে। এরা কীভাবে ইসলামে বিশ্বাস করে? এ দেশে জঙ্গিবাদের কোনো স্থান হবে না। অপরাধীদের অবশ্যই বিচারের মুখোমুখি হতে হবে।

তিনি বলেন, জঙ্গিবাদের সঙ্গে ইসলামের কোনো সম্পর্ক নেই। কোনো ধর্মেরও সম্পর্ক নেই। জঙ্গিবাদীরা সন্ত্রাসী, সন্ত্রাসই তাদের ধর্ম। এ সন্ত্রাসীদের জায়গা বাংলাদেশের মাটিতে হবে না।

প্রতিনিয়ত হুমকির মধ্যেই থাকেন জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আমি পরোয়া করি না। কারণ, আমি আল্লাহকে বিশ্বাস করি। আমার মা-বাবা, পরিবার আল্লাহকে বিশ্বাস করতেন। যা হবে আল্লাহ তা ভালোর জন্যই করবেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ফিলিস্তিনে নির্বিচারে নারী-শিশু হত্যা করা হচ্ছে। এটা নিয়ে বিদেশের এক অনুষ্ঠানে কেবল আমি কথা বলেছি। বিশ্ব নেতাদের আরও অনেকে ছিলেন ওই অনুষ্ঠানে, কিন্তু কেউ কথা বলেননি। images

আওয়ামী লীগ যতবার ক্ষমতায় এসেছে ইসলামের প্রচার ও প্রসারে কাজ করেছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ক্ষমতায় থাকাকালে আইন করে মদ-জুয়া নিষিদ্ধ করেছিলেন, ঈদে ছুটি চালু করেছিলেন, মাদরাসা বোর্ড প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, রেডিও এবং টিভি অনুষ্ঠান শুরুর আগে পবিত্র কোরআন পাঠ চালু করেছিলেন।

তিনি স্মরণ করেন, জাতিসংঘ সদস্য পদের পাশাপাশি ইসলামী দেশগুলোর জোট ওআইসিরও সদস্য পদও বঙ্গবন্ধুর সময় পাওয়া গেছে। তিনি হজযাত্রীদের জন্য যে জাহাজ বানিয়েছিলেন, সেটি বঙ্গবন্ধু হত্যার পরে জিয়া (প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান) অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে প্রমোদতরী বানিয়েছিলেন। হজযাত্রীদের জন্য বানানো সেই জাহাজ নাচ-গানের জাহাজে পরিণত করেছিলেন জিয়া।

বঙ্গবন্ধু হত্যার ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে বঙ্গবন্ধ‍ু যেভাবে ইসলামের প্রচার-প্রসারে কাজ করেছেন, সে পথ অনুসরণ করতে থাকে। ৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে আওয়ামী লীগ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কর্মচারীদের রাজস্বভাতার আওতায় নিয়ে আসে। ইমাম-মোয়াজ্জিনদের জন্য কল্যাণ ট্রাস্ট তৈরি করে।

এ ধারা এখনও অব্যাহত আছে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী