বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার মদের নিষিদ্ধকরণে এবার ১১ হাজার কিলোমিটার মানববন্ধন করার পরিকল্পনা নিয়েছেন। দল, মত নির্বিশেষে সকলের সমর্থন আদায়ের লক্ষ্যে এ কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছ থেকে রাজ্যে মদের নিষিদ্ধকরণ নীতি নিয়ে ব্যাপক প্রশংসা লাভের দুইদিন পর এ পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করলেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারের এতে ২ কোটি মানুষের অংশগ্রহণের আশাবাদ। মূলত: মদ নিষিদ্ধকরণে সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি করাই এই কর্মসূচির প্রধান লক্ষ্য। জানুয়ারির ১১ তারিখে নির্ধারিত এই মানববন্ধনে প্রথমে ৫ হাজার কিলোমিটার ছিল।
পরে তা দ্বিগুণেরও বেশি করে ১১ হাজার কিলোমিটার নির্ধারণ করা হয়েছে। বিহার সরকার মানববন্ধনে দুই কোটিরও বেশি মানুষের অংশগ্রহণের চেষ্টা করছেন। আর যদি এটা সফল হয় তাহলে তা বিশ্বের মধ্যে যে কোন ইস্যুর চেয়ে বৃহত্তম হবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে কোন সময়ে এ মানববন্ধন হবে তা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে এটি প্রায় অর্ধঘন্টা হবে। প্রতিটি জেলায় কয়েকটি করে ড্রোন ও হেলিকপ্টার থাকবে আকাশ থেকে ছবি উঠানোর জন্য।
ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোও তার স্যাটেলাইট থেকে ছবি সংগ্রহ করবে বলে রাজ্য সরকারের থেকে নির্দেশনা পেয়েছে। বিহারের মুখ্য সচিব অঞ্জানি কুমার সিংহ বলেন, এই মানববন্ধন কেবল মদ নিষিদ্ধকরণেই  এখানকার মানুষকে সচেতনতা সৃষ্টি করবে না পাশাপাশি পার্শ্ববর্তী ঝাড়খণ্ড ও উত্তর প্রদেশেও একই নীতি অনুসরণে তাদেরকে অনুপ্রাণিত করবে।
গত বছর এপ্রিল থেকে বিহার রাজ্যে মদ নিষিদ্ধকরণ নীতি আরোপ করা হয়। সেসময় থেকে এখন পর্যন্ত ১৬ হাজারেরও বেশি লোককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মদ্যপান কিংবা মদ পরিবহণের অভিযোগ ছিল। যদিও এই নীতিকে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিমকোর্টে পিটিশন দাখিল করা হয়েছে। এনডিটিভি।