বিশ্বখ্যাত মার্কিন প্রভাবশালী সাময়িকী ফোর্বস বিশ্বের প্রভাবশালী একশ নারীর তালিকা প্রকাশ করেছে। তালিকায় স্থান পেয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২০১৫ সালের প্রভাবশালী নারীদের এ তালিকায় ৫৯তম অবস্থানে আছেন তিনি। অবশ্য গত বছর ৪৭ এ ছিলেন তিনি। আর শীর্ষে রয়েছেন জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা মের্কেল।

এবছর প্রাথমিকভাবে বিশ্বব্যাপী তিনশ প্রভাবশালী নারীর খসড়া তালিকা তৈরি করা হয়। পরে সেখান থেকে আটটি ক্যাটাগরিতে একশ জন প্রভাবশালী নারীকে বাছাই করা হয়। যে আটটি ক্যাটাগরির প্রভাবশালী নারীদের তালিকা করা হয়েছে এগুলো হচ্ছে- বিলিয়নার, ব্যবসায়ী, তারকা, আর্থিক অবস্থা, গণমাধ্যমে উপস্থিতি, জনহিতৈষী ও আন্তঃসরকার সংগঠন, রাজনীতি ও প্রযুক্তি। আর একশজনের তালিকায় ক্রমবিন্যাসের জন্য অর্থ, গণমাধ্যমে উপস্থিতি, আঞ্চলিক প্রতিপত্তি ও প্রভাবকে পরিমাপক হিসেবে ধরা হয়েছে।

তালিকার শীর্ষে রয়েছেন জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা মের্কেল। ভূমধ্যসাগরে অভিবাসী সঙ্কট, রাশিয়ার ওপর অবরোধ, জার্মানির ভেতরে বেড়ে যাওয়া গোয়েন্দা কেলেঙ্কারি, ইউরোজোনের স্থিতিশীলতা ধরে রাখা এবং স্বস্তার বিমান পরিচালনাকারী সংস্থা জার্মান উইংস দুর্ঘটনার পরিস্থিতি যেভাবে মোকাবেলা করেছেন, সেই সাফল্যই তাকে তালিকার শীর্ষে জায়গা করে দিয়েছে।

তালিকায় এরপরের অবস্থানেই আছেন ২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। হিলারি অবশ্য সেই ২০০৪ সাল থেকেই ফোর্বসের প্রভাবশালী নারীদের তালিকায় রয়েছেন। এবার তার দুই নম্বরে জায়গা করে নেয়ার কারণ হচ্ছে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হলেই তার মাথায় উঠেবে বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী নারীর মুকুট।

প্রভাবশালী নারীদের তালিকায় এরপর যারা রয়েছেন তারা কেউ রাষ্ট্রপ্রধান, কেউ আদর্শ ব্যবসায়ী ও সিইও, তারকা খ্যাতি পাওয়া মডেল, শত কোটি ডলারের সম্পত্তির মালিক এবং জনহিতৈষী।

এবছর শীর্ষ দশে ঠাঁই পাওয়া অন্যদের মধ্যে রয়েছেন- বিল গেটসের স্ত্রী মেলিন্ডা গেটস, যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভের চেয়ারম্যান জ্যানেট ইয়েলিন, শীর্ষ গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান জেনারেল মটরসের সিইও ম্যারি বারা, আইএমএফ প্রধান ক্রিস্তিন লাগার্ড, ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট দিলমা রুসেফ, ফেসবুকের চিফ অপারেটিং অফিসার শেরিল স্যান্ডবার্গ, ইউটিউবের সিইও সুসান উজসিসিকি এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার স্ত্রী মিশেল ওবামা।

প্রভাবশালী এই নারীদের তালিকায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবস্থান ৫৯তম। গত বছর এই তালিকায় তিনি ছিলেন ৪৭ নম্বরে।