বিশ্ববাজারে প্রথমবারের মতো ইসলামী বন্ড ইস্যু করে ৯ বিলিয়ন ডলার তুলেছে সৌদি আরব। সম্প্রতি দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে এমন ঘোষণা দিয়ে জানানো হয়, এর ফলে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ নিয়ে চাপ কিছুটা কমবে। গত অক্টোবরে দেশটি গতানুগতিক ঋণের বাজার থেকে বন্ড ইস্যু করে ১৭.৫ বিলিয়ন ডলার তোলে। এর পরই ‘সুকুকস’ নামে ইসলামী বন্ড বাজারে ছাড়া হয়।

এ ছাড়া অভ্যন্তরীণ বাজারের বন্ডও বিক্রি করে দেশটি। মূলত সৌদি আরব অর্থনৈতিক সংস্কারের অংশ হিসেবে রিজার্ভকে শক্তিশালী করতে বন্ড ইস্যু করে অর্থ তুলছে। ২০১৪ সালের পর থেকে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম পড়তে থাকায় সৌদি আরব বড় অঙ্কের বাজেট সংকটে পড়ে।

দেশটির অর্থ মন্ত্রণালয় জানায়, দুই ভাগে এ বন্ড ইস্যু করা হয়। প্রথমটির মেয়াদ ২০২২ সাল পর্যন্ত, এর মাধ্যমে ৪.৫ বিলিয়ন ডলার তোলা হয়। বাকি অর্থ তোলা হয় ২০২৭ সাল পর্যন্ত মেয়াদি বন্ড থেকে।

এ বছর রিয়াদ ৫৩ বিলিয়ন ডলার বাজেট ঘাটতিতে পড়তে যাচ্ছে বলে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছিল। এ মাসে সৌদি প্রতিষ্ঠান জাদওয়া ইনভেস্টমেন্ট এক প্রতিবেদনে জানায়, দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ, সিকিউরিটিজ, ব্যাংক ডিপোজিট এবং সোনার মজুদ কমে ছয় বছরে সর্বনিম্নে নেমেছে।