উত্তর কোরিয়ার কর্তৃপক্ষ সেদেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী হায়ুন ইয়ং-চোলের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে জানিয়েছে প্রতিবেশী দক্ষিণ কোরিয়া গোয়েন্দা দপ্তর।

বিমান বিধ্বংসী গোলার আঘাতে তাঁর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় বলে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যম।

ধারণা করা হচ্ছে যে, দেশটির নেতা কিম জং-উনের বিরাগভাজন হওয়ার কারণেই তাঁর বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
প্রায় দুই সপ্তাহ আগে ওই ঘটনা ঘটলেও সম্প্রতি সেটি জানা গেছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার পার্লামেন্টে এক প্রতিবেদনে গোয়েন্দা দপ্তর ইয়োনহাপ জানিয়েছে, ৩০শে এপ্রিল উত্তর কোরিয়ায় এক বিমান বিধ্বংসী গোলার আঘাতে হায়ুন ইয়ং-চোল নিহত হন।

সম্প্রতি তিনি দেশটির নেতা কিম জং-উনের বিরাগভাজন হয়ে উঠেছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইয়োনহাপ বলছে, একটি অনুষ্ঠান চলার সময় কিম জং-উনের উপস্থিতিতে ইয়ং-চোল ঘুমিয়ে পড়েছিলেন। তবে সেই ঘটনার জের ধরেই এই মৃত্যুদণ্ড কিনা তা এখনো পরিষ্কার নয়। তবে উত্তর কোরিয়ার কোন সূত্র থেকে এই খবর নিশ্চিত করা যায়নি।

২০১২ সাল থেকে দেশটির প্রতিরক্ষা দপ্তরের প্রধান হিসাবে দায়িত্ব পালন করছিলেন ইয়ং-চোল।