বিএনপির নীতিনির্ধারকরা বলছেন তারা শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন করবে না, আবার একতরফা নির্বাচনও করতে দেবে না, বিএনপি আসলে কী চায় তারা নিজেরাই জানে না বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার নিমতলায় ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা পরিদর্শনকালে সেতুমন্ত্রী এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বিএনপি বলে তারা ফাঁকা মাঠে গোল দিতে দেবে না, আমরাও ফাঁকা মাঠে গোল দিতে চাই না। তারা অভিযোগ করে আমরা একদিকে নির্বাচনের কথা বলি আরেক দিকে মামলা দিই। আমরা বলি নির্বাচনের পরিবেশের সঙ্গে মামলার কোনো সম্পর্ক নেই। তিনি বলেন, মওদুদ আহমেদ আইনের লোক হয়ে বেআইনি কাজ করেছেন। তার বাড়ি উচ্ছেদ হয়েছে আইনি লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে, এতে কারও হাত নেই।

আসন্ন ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন ও যানজট নিরসনের পদক্ষেপ হিসেবে, যাত্রীদের নিরাপত্তার জন্য বাইপাইল, নবীনগর, চন্দ্রা, কোনাবাড়ি, ভোগড়া, ভুলতা, কাঞ্চন ব্রিজ, কাঁচপুর, মেঘনা, দাউদকান্দি মহাসড়কের এ ১০টি পয়েন্টে তিন শতাধিক আনসার মোতায়েন করা হবে। এ ছাড়া বাইপাইল, নবীনগর, চন্দ্রা, কোনাবাড়ি, কালিয়াকৈর বাইপাস এ পাঁচটি পয়েন্টে ১৫টি আইপি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে। যেগুলো যানজট পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবে। সেতুমন্ত্রী মহাসড়কের প্রবেশ পথগুলো দখলমুক্ত রাখার নির্দেশনাও দেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন বিআরটিএর আদালত ৩-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ আবদুস সালাম। এ সময় ২৮টি মামলা ও ২২ হাজার ৩ শত টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।