বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া কী পেয়েছেন তা জানতে চান প্রধানমন্ত্রী

0
195
পাঁচ জানুয়ারির দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রতিরোধের ঘোষণা দিয়ে জ্বালাও পোড়াও করে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া কী পেয়েছেন তা জানতে চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠক শেষে সোমবার বেলা ১২টার দিকে সচিবালয়ে তিনি বলেন, গত পাঁচ জানুয়ারির নির্বাচন প্রতিরোধের ঘোষণা দিয়ে বিএনপি নেত্রী জ্বালাও পোড়াও শুরু করলেন। সরকারি সম্পদ, জনগণের সম্পদ ধ্বংস করলেন। এতোগুলি মানুষ পুড়িয়ে কি পেলেন। সেখানেই আমার প্রশ্ন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার উৎখাত করে ঘরে ফিরবেন বলে কার্যালয়ে বসেছিলেন বিএনপি নেত্রী (খালেদা জিয়া)। বাবা-ছেলে,  ট্রাক ড্রাইভার-হেলপারকে পুড়িয়ে মেরেছেন। জানিনা তার কি অর্জন হয়েছে।
আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, মানুষ খুন কোনো রাজনীতিক নেতা করতে পারেন তা ভাবতে পরিনা। তাকে (খালেদা জিয়া) ঘরে ফিরে যেতে হয়েছে। কোটেও হাজিরা দিয়েছেন। আশাকরি ভবিষ্যতে সরকার পতনের এমন কথা আর চিন্তা করবেন না।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় এসে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ করে দিয়েছিল। যারা বাংলাদেশ ছেড়ে চলে গিয়েছিল তাদের ফিরিয়ে এনেছিল। সেই রাজাকার প্রধান যারা বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করেছে তাদের ক্ষমতায় বসিয়েছিল, তাদের হাতে পতাকা তুলে দিয়েছিল বিএনপি। তারা যখন ক্ষমতায় ছিল দেশ গাড়ার কাজে তারা কখনো জড়িত ছিল না। ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত যে তাণ্ডব চলেছে তা মানুষ মেনে নিতে পারেনি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের দুর্ভাগ্য এমন সময় আমরা সরকার গঠন করি। এই অবস্থায় আমাদের রাষ্ট্র পরিচালনা শুরু করি। আজ আমরা যখন দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। তখন তাণ্ডব চালানো হয়েছে। দেশের প্রত্যেকেই বিএনপিকে প্রত্যাখান করেছে। সাধারণ মানুষ শান্তি চায়।
তিনি বলেন, এখন শান্তি ফিরে আসছে। গত তিন মাসে যে ক্ষতি হয়েছে তা পুষিয়ে নিতে পারব বলে বিশ্বাস করি। আজ বাংলাদেশ এত তাণ্ডবের পরও প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছি। বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তখন বীভৎস ঘটনা ঘটেছিল। এসব রোধে তখনকার সারকারের পক্ষ থেকে কিছু করা হতো না। বিএনপি এসব কাজে ল্পিত ছিল। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসায় শান্তি ফিরে এসেছে। প্রত্যেক এলকায় যারা তাণ্ডব চালিয়েছে তাদের খুঁজে বের করতে হবে। তাদের শাস্তি দেওয়া প্রয়োজন।