বাচ্চাদের প্রিয় খাবার ডোনাট

উপকরণঃ ময়দা আড়াই কাপ ( ডো বেশি ভেজাভেজা হলে প্রয়োজনে আরও আধা কাপ লাগবে) চিনি ৬০ গ্রাম। লবণ অল্প। ইস্ট ৭ গ্রাম। ২টি ডিম। কুসুমগরম দুধ ১ কাপ ( ২৫০ মিলি.)। তেল বা গলানো বাটার ৩-৪ টেবিল চামচ বা ৭৫ গ্রাম। ভ্যানিলা এসেন্স আধা চা-চামচ।

পদ্ধতিঃ প্রথমে ব্লেন্ডারে শুকনা উপকরণগুলো নিয়ে ব্লেন্ড করুন। তারপর একএকে সব ভেজা উপকরণগুলো দিয়ে দুই মিনিট ব্লেন্ড করে নিন। খামিরটা একটু বেশি পাতলা বা ভেজাভেজা হলে আরও আধা কাপের মতো ময়দা দিয়ে আবার ব্লেন্ড করুন।

এখন একটি বাটিতে ঢেলে ১০ মিনিট ঢেকে রাখুন। খামির ফুলে দ্বিগুণ হবে। তারপর রুটি বানানোর পিঁড়িতে ময়দা ছিটিয়ে এক ইঞ্চি মোটা করে রুটি বেলে নিন।

বেইকিং ট্রেতে বেইকিং শিট বিছিয়ে দিন। এখন গোল কাটার বা ডোনাট কাটার দিয়ে ডোনাট কেটে বেইকিং শিটের উপর রাখুন। দুটো ডোনাটের মধ্যে জায়গা রাখবেন। কারণ ডোনাট আরও ফুলে উঠবে।

ট্রেতে যে কয়টা দেওয়া যাবে সেই কয়টাই রাখুন। বাকি খামির ঢেকে রাখুন বা অন্য ট্রেতে একইভাবে রাখুন । এখন ডোনাট ট্রে একটি কিচেন টাওয়াল দিয়ে ঢেকে ৪৫ মিনিট রেখে দিন।

ওভেন প্রি-হিটে ১০ মিনিট ২২৫ ডিগ্রিতে করে রাখুন। তারপর, ডোনাট ট্রেটি ওভেনে সেট করে ১০ থেকে ১২ মিনিট বেইক করে নিন। তারপর ডোনাট একদম ঠাণ্ডা হয়ে গেলে চকলেট গলিয়ে উপরে ছড়িয়ে দিতে পারেন। আবার সুগার গ্লেইজও করে দিতে পারেন।

সুগার গ্লেইজ করার পদ্ধতি

গুঁড়াচিনি ১ কাপ। গরম পানি বা দুধ ১ টেবিল-চামচ। ভ্যানিলা এসেন্স ১ চা-চামচ। মাখন ১ চা-চামচ(ইচ্ছা)।

সব একটি বাটিতে নিয়ে ভালো করে মাখনের মতো না হওয়া পর্যন্ত মেশান। তারপর মিশ্রণটি ডোনাটের উপরে মাখিয়ে দিন।

* এই ডোনাট তেলে বাদামি করে ভেজে পছন্দমতো গ্লেইজ করতে পারেন বা শুধুও খাওয়া যায়।