বাংলাদেশ থেকে ভারতে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ রপ্তানি

0
152

বাংলাদেশ থেকে প্রতিবেশী দেশটিতে ১০ জিবিপিএস (গিগাবাইট পার সেকেন্ড) ব্যান্ডউইথ রপ্তানির অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এ লক্ষ্যে ভারতের রাষ্ট্রীয় টেলিকম সংস্থা ভারত সঞ্চার নিগম লিমিটেড (বিএসএনএল) এবং বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেডের (বিএসসিসিএল) মধ্যে লিজিং অব ইন্টারন্যাশনাল ব্যান্ডউইথ ফর ইন্টারনেট এট আখাউড়া শীর্ষক চুক্তি স্বাক্ষরের প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে।

আজ সোমবার সচিবালায়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মোশাররফ হোসাইন ভুঁইঞা এক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের জানান, বাংলাদেশে বর্তমানে ২০০ জিবিপিএস ক্ষমতাসম্পন্ন সাবমেরিন ক্যাবল রয়েছে। এর মধ্যে মাত্র ৩০ জিবিপিএস বাংলাদেশ ব্যবহার করে। বাকি ১৭০ জিবিপিএস অব্যবহৃত। আর সেখান থেকেই মাত্র ১০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ রপ্তানি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে এর মাত্রা ৪০ জিবিপিএস পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। এ চুক্তির মেয়াদ হবে ৩ বছর।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, কক্সবাজার থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া হয়ে আখাউড়া দিয়ে ইন্টারনেট রপ্তানি করবে বাংলাদেশ। এরপর সেখানে থেকে ভারত নিজেদের সুবিধা মতো তা নিয়ে যাবে। বাংলাদেশের এ ব্যান্ডউইথ ভারতের আসাম, ত্রিপুরা, মেঘালয়, মিজোরাম, নাগাল্যান্ড, মনিপুর ও অরুণাচল রাজ্যে ব্যবহৃত হবে বলে জানা গেছে।

মোশাররফ হোসাইন ভুঁইঞা জানান, ভারতের কাছে ১০ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ রপ্তানি করে বাংলাদেশ ৯ কোটি ৪২ লাখ টাকা মূল্যের বৈদেশিক মুদ্রা আয় করবে। এ টাকার ৪ ভাগের এক অংশ দিয়ে বিএসসিসিএলের কর্মকর্তা কর্মচারীদের বেতন দেয়া যাবে। অন্যদিকে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে ২য় সাবমেরিন ক্যাবল প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে বাংলাদেশ দেড় হাজার জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ ক্ষমতাসম্পন্ন হবে বলেও মন্ত্রিপরিষদসচিব জানান।