লেখক ও ব্লগার অভিজিৎ রায় হত্যার একই ঘটনায় গুরুতর আহত তাঁর স্ত্রী রাফিদা আহমেদ বন্যার সঙ্গে ঢাকায় কথা বলেছে এফবিআই ।

images (1)

গত ২৬শে ফেব্রুয়ারি রাতে বইমেলা থেকে বের হওয়ার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি’র উল্টো দিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গেটে আক্রান্ত হন অভিজিৎ রায় এবং তার স্ত্রী রাফিদা আহমেদ বন্যা। অভিজিৎ এবং বন্যা দু’জনই যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক।
অভিজিৎ হত্যা তদন্ত সহয়তায় এফবিএআই’র চার সদস্য ড্যান ক্লেগ, জাগদীপ সিং, ত্রিক্রস ও উইলিয়াম ঢাকায় আসেন বন্যা যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার পরদিন ৪ঠা মার্চ। তাই এই টিমের সদস্যদের ঢাকায় এসে বন্যার সঙ্গে কথা বলার সুযোগ ছিল না। একারণেই ২ মার্চ স্কয়ার হাসপতালে ঢাকার মার্কিন দূতাবাসের প্রতিনিধির মাধ্যমে বন্যার সঙ্গে কথা বলে এফবিআই।

যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম জানান, ২ মার্চ স্কয়ার হাসপাতালে অভিজিতের স্ত্রী’র সঙ্গে কথা বলেছেন দূতাবাসের একজন এফবিআই প্রতিনিধি এবং দূতাবাসের একজন কর্মকর্তা। সেখানে ডিবি’র একজন কর্মকর্তাও উপস্থিত ছিলেন। দূতাবাসের মাধ্যমে এফবিএই অনুরোধ করলে বন্যা যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার আগেই তাঁর সঙ্গে কথা বলার ব্যবস্থা করে ডিবি।

তিনি জানান,‘ তিনি হামলার ধরণ এবং সেখানকার পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন হামলাকারীদের দেখলে হয়তো তিনি চিনতে পারবেন। আর দুর্বৃত্তরা আচমকা হামলা চালায় এবং হামলার পর দ্রুত পালিয়ে যায়। হামলার সময় সেখানে অনেক লোক ছিল। আশপাশে পুলিশও ছিল।’