বনানীর বাড়ি বিক্রি করে ব্যাংক ঋণের টাকা শোধ করেছেন সাঈদ খোকন

0
160

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বাড়ি বিক্রি করে ব্যাংক ঋণের টাকা শোধ করেছেন।
তিনি রবিবার তার বনানীর বাড়ি বিক্রি করেছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে দৈনিক সমকাল।
প্রতিবেদনে বলা হয়, গতকালই প্রিমিয়ার ব্যাংকের বনানী শাখায় ঋণের টাকা পরিশোধ করেছেন সাঈদ খোকন।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সাঈদ খোকন সমকালকে বলেন, ‘হ্যাঁ, গতকাল বনানীর বাড়িটি বিক্রি করে দিয়েছি। আর বাড়ি বিক্রির টাকা দিয়ে ব্যাংকের ঋণও পরিশোধ করেছি। আমার নেওয়া ব্যাংকের ঋণ নিয়ে আদালতের স্থগিতাদেশ রয়েছে। তারপরও অহেতুক জটিলতা নিরসনের জন্য বাড়ি বিক্রি করে দিয়েছি।’
কত টাকায় বাড়ি বিক্রি করেছেন আর কত টাকার ঋণ পরিশোধ করেছেন_ এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি সাঈদ খোকন। তবে বাড়ি বিক্রি এবং ঋণের টাকা পরিশোধ করার খবর তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করেছেন। এ নিয়ে গতকাল সংসদ অধিবেশন চলাকালে সংসদ লবিতে আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথাও বলেছেন।
এ সময় নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক লে. কর্নেল (অ.) ফারুক খান এমপি এবং কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ড. আবদুর রাজ্জাক এমপি।
নেতারা প্রধানমন্ত্রীকে বলেছেন, সাঈদ খোকনের ব্যাংক ঋণের সমস্যা মিটে গেছে। তিনি (সাঈদ খোকন) বাড়ি বিক্রি করে ঋণের টাকা পরিশোধ করেছেন। বিষয়টি তারও জানা আছে বলে নেতাদের জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে ঢাকা দক্ষিণ সিটির নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন শেখ হাসিনা।
এ সময় মেয়র পদে আওয়ামী লীগে মোহাম্মদ সাঈদ খোকনের প্রতিপক্ষ ঢাকা-৭ আসনের স্বতন্ত্র এমপি হাজি মোহাম্মদ সেলিমের প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয় নিয়ে অল্পবিস্তর আলোচনা হয়। একপর্যায়ে নির্বাচন থেকে সরিয়ে নিতে হাজি সেলিমের সঙ্গে কথা বলার প্রসঙ্গ এলে প্রধানমন্ত্রী নেতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছেন।
উল্লেখ্য, সাঈদ খোকনের ঋণখেলাপি হওয়া নিয়ে কয়েকদিন ধরেই গুঞ্জন ছিল। এ কারণে তিনি নির্বাচন করতে পারবেন কিনা তা নিয়েও কানাঘুষা চলছিল।