ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনামন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া তিন মাস দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে সর্ব শেষে জনগণের কাছে ধরা পড়েছেন।

বুধবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক বর্ধিত সভায় তিনি এ কথা বলেন।
তিনি লেন, আওয়ামী লীগ সরকারকে হটাতে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করতেই গুমের নাটক করেছেন বিএনপি নেতা সালাহ উদ্দিন। তিনি ভারতে বসে বিশ্বের কোন কোন জঙ্গী সংগঠনের সঙ্গে ২ মাসে যোগাযোগ করেছেন তা খতিয়ে বের করতে হবে। তিন মাস ষড়যন্ত্র করে সব শেষে বাংলাদেশের জনগণের কাছে খালেদা জিয়া ধরা পরেছেন।
মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, সালাহ উদ্দিন আহমেদ ৩ মাস দেশে থেকে ষড়যন্ত্র করে কিভাবে ভারতে গেলেন। তার তো পাসপোর্ট নেই। এ বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা উচিত।
নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির সকল ষড়যন্ত্র আমরা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে মোকাবেলা করেছি। গত সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মধ্য দিয়ে আবারও প্রমাণিত হয়েছে জনগণ আমাদের সঙ্গে আছে। তবে বিএনপি দেশে তৃতীয় শক্তি উত্থানের ষড়যন্ত্র এখনও করে যাচ্ছে। তাই তাদের সকল ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিকে আরো ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।
আগামী ১৭ মে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিভিন্ন কর্মসূচি সফল করার লক্ষে আজ বুধবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই বর্ধিত সভার আয়োজন করা হয়। সভায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনামন্ত্রী ছাড়াও বক্তব্য দেন সহ-সভাপতি ফয়েজ উদ্দিন মিয়া, মুকুল চৌধুরী ও শেখ বজলুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আওলাদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, দপ্তর সম্পাদক সহিদুল ইসলাম মিলন প্রমুখ।