খোঁজ মিলেছে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদের। কথিত নিখোঁজ হওয়ার দুইমাস পর তার সঙ্গে ফোনে কথা বলার বিষয়টি জানিয়েছেন তার স্ত্রী হাসিনা আহমেদ।

মঙ্গলবার দুপরে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাৎ শেষে বের হয়ে সাংবাদিকদের তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

হাসিনা আহমদ বলেন, ‘বেলা ১২টার দিকে ভারত থেকে তিনি (সালাহ উদ্দিন) আমাকে ফোন করেছেন। তার সঙ্গে কথা হয়েছে।’কিভাবে তাকে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা শিঘ্রই এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিবো। পরে আপনাদের সবাই বিষয়টি জানাবো’।

সূত্র জানায়, মঙ্গলবার দুপুর ১২টার কিছুক্ষণ আগে সালাহ উদ্দিনের সঙ্গে তার স্ত্রীর কথা হয়। এরপর হাসিনা আহমেদ সরাসরি যান বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বাসায়।

এর আগে গত ১৯ মার্চ গাইবান্ধা জেলার ফুলছড়ি উপজেলার ব্রহ্মপুত্র নদের দুর্গম চরাঞ্চলে সালাহ উদ্দিন আহমেদের সন্ধান না পাওয়ার গুজব ওঠেছিল। পরে ওই এলাকা অভিযান চালিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কারোর সন্ধান পায়নি।

গত ১০ মার্চ রাতে উত্তরার একটি বাসা থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে সালাহ উদ্দিন আহমেদকে কিছু ব্যক্তি তুলে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করে আসছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বরাবরই এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। স্বামীর খোঁজ চেয়ে পরদিন রাতে গুলশান থানা ও উত্তরা থানায় জিডি করতে চাইলেও পুলিশ তা নেয়নি বলে অভিযোগ করেন হাসিনা। এরপর ১২ মার্চ সালাহ উদ্দিন আহমেদকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে হাজির করার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেন তার স্ত্রী হাসিনা আহমদ।

গত ৯ এপ্রিল শুনানি শেষে ১৫ এপ্রিল এ সংক্রান্ত আদেশের জন্য দিন নির্ধারণ করেছিলেন আদালত। পরে এ বিষয়ে আরও তথ্য উপস্থাপন করতে চাইলে আদালত ২০ এপ্রিল শুনানির আদেশের দিন নির্ধারণ করেন। ওই দিন আগামী ছয় মাস সালাহ উদ্দিন আহমদের খোঁজ অব্যাহত রাখতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। প্রতি মাসের শুরুতে এই অনুসন্ধান প্রক্রিয়ার অগ্রগতি নিয়ে আদালতে প্রতিবেদন জমা দিতেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।