হরতাল অবরোধ ও মানুষ পুড়িয়ে মারার জঘন্য রাজনীতিতে বিপর্যস্ত দেশকে বাঁচাতে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে নতুন একটি দল। দলটির প্রধান লক্ষ্য হবে হতদরিদ্র মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা, বেকারত্ব দূরীকরণ।

শনিবার বাড্ডায় অবস্থিত জামালপুর টাওয়ারে প্রধান কার্যালয়ে দলটির পক্ষ থেকে এ কথা জানানো হয়। দলটির আহ্বায়ক হিসেবে সাংবাদিকদের এ কথা জানান মেজর (অব.) শওকত হোসাইন মিয়া।

শওকত হোসাইন বলেন, ‘দেশের বর্তমান আর্থ সামাজিক প্রেক্ষাপটে একটা গোষ্ঠী রাজনৈতিক অধিকারের নামে যেভাবে জ্বালাও পোড়াও চালিয়ে যাচ্ছে তা মেনে নেয়া যায় না। হরতাল-অবরোধ, গাড়ি ভাঙচুর, পেট্রোলবোমা নিক্ষেপ করে মানুষ হত্যা করা, যানবাহন চলাচলে বিঘ্নিত করা, মানুষের ব্যবসা বাণিজ্য থামিয়ে দেয়ার অপপ্রয়াস চলছে।’ এ সময় তাদের প্রতিহত করতে এবং সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতেই নতুন এ দলের সূচনা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘আমরা সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে চাই। কেউ যদি ভুল করে তার সমালোচনার মাধ্যমে তার ভুলগুলো ধরিয়ে দিতে চাই। আবার কেউ ভালো করলে তাকেও আমরা বাহবা দেবো। মাঠে থেকে আমরা অন্যায়ের প্রতিবাদ করবো। এ জন্যই আমাদের দলটির আত্মপ্রকাশ হচ্ছে।’ আগামী ৭ মার্চের মধ্যে কোনো এক সময় সংবাদ সম্মেলন করে দলটি আত্মপ্রকাশ করবে।

তিনি দাবি করেন, সারাদেশে জেলা, উপজেলায় ১০১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি করা হয়েছে। খুব শিগগিরই ইউনিয়নেও কমিটি করা হবে। এছাড়া সারাদেশে তাদের সব মিলিয়ে ১০ লাখ নেতাকর্মী রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

প্রাথমিকভাবে ১৬৭ জনের গঠিক কমিটি নিয়ে পরিচালিত হবে এ দলটি। এ সময় অন্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক মিয়া, উপদেষ্টা এসএ খান মাহি, সদস্য সচিব ডা. শফিকুর রহমান, প্রচার সম্পাদক মোহা. নাজিম তালুকদার প্রমুখ।