বিদেশের মাটিতে পালিয়ে থাকা বড় দুর্নীতিবাজদের তালিকা করে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে বলে মন্তব্য করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। আজ মঙ্গলবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দুর্নীতিবিরোধী মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। মানববন্ধনের আয়োজন করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ইকবাল মাহমুদ বলেন, যারা দুর্নীতিবাজ তাদের জন্য দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হয়। দুর্নীতিবাজদের নির্মূল করতে কমিশন কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের সবাইকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। দুর্নীতি নির্মূল করা শুধু দুদকের কাজ নয়। সবাই এক না হলে দুর্নীতি দমন করাও সম্ভব নয়।

বিদেশে পালিয়ে থাকা দুর্নীতিবাজদের দেশে ফিরিয়ে আনা হবে কিনা সংবাদকর্মীদের এমন প্রশ্নে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, যারা দুর্নীতি করে বিদেশের মাটিতে পালিয়ে আছে তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে। চলতি বছরে দুর্নীতি প্রতিরোধে এক এক করে তালিকা করে বড় বড় দুর্নীতিবাজদের দেশে ফিরিয়ে এনে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। দুর্নীতিবাজদের কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে জানিয়ে ইকবাল মাহমুদ বলেন, তরুণ প্রজন্মকে মাদকের করাল গ্রাস থেকে রক্ষা করতে হবে। মাদকের কুফল সম্পর্কে শিক্ষার্থীদেরকে জানাতে হবে। দুর্নীতি দমন কমিশন বিখ্যাত মাদক সম্রাটকেও ছাড় দেয়নি। আইন অনুযায়ী আটক করে মাদক সম্রাটদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, দুদক কোনো গ্রেপ্তারি সংস্থা নয় যারা আসামিদের গ্রেপ্তার করবে। কিন্তু কমিশন তখনই কোনো আসামিকে গ্রেপ্তার করে যখন তিনি আইন ভঙ্গ করেন কিংবা আদালতের নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখান। আমরা দুর্নীতি প্রতিরোধে রাষ্ট্রীয় একটি সংস্থা। আমাদের কাজ দুর্নীতি নির্মূল করা। কিন্তু কমিশন একা কোনো সফলতা আনতে পারে না। যদি না কমিশনের চারপাশে অনেকগুলো সহায়তার হাত না থাকে। দুর্নীতিবিরোধী মানববন্ধনের উদ্দেশ্য দুর্নীতিকে না বলা মন্তব্য করে তিনি বলেন, আমরা চাই দেশ দুর্নীতিমুক্ত হোক। দুর্নীতির রাহুগ্রাস থেকে সবাই মুক্তি পান। কিন্তু দেশের প্রত্যেকটি সেক্টরে কমবেশি দুর্নীতি রয়েছে। আর এটা নির্মূল করতে হলে সবাইকে সচেতন হতে হবে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। তবেই দেশ হবে দুর্নীতিমুক্ত।