তাইজুলের ঘুর্ণিতে তিনদিনেই চট্টগ্রাম টেস্ট জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ
তাইজুলের ঘুর্ণিতে তিনদিনেই চট্টগ্রাম টেস্ট জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ

তাইজুলের ঘুর্ণিতে তিনদিনেই চট্টগ্রাম টেস্ট জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ। স্বাগতিকরা এই ম্যাচে জয় পেয়েছে ৬৪ রানে। ৭৮ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস খেলতে নামা বাংলাদেশ শনিবার ১২৫ অলআউট হয়। এতে সফরকারীদের সামনে ২০৪ রানের জয়ের লক্ষ্য নির্ধারিত হয়। সেই লক্ষ্য পূরণে মাঠে নেমে আজ তৃতীয় দিনেই ১৩৯ রানে গুটিয়ে যায় ক্যারিবীয়দের দ্বিতীয় ইনিংস।

এতে দুই ম্যাচ সিরিজে বাংলাদেশ ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল। সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ আগামী ৩০ নভেম্বর মিরপুরে শুরু হবে।

শনিবার লক্ষ্য তাড়া করতে নামা ক্যারবীয় ব্যাটিং লাইনে প্রথমে জোড়া আঘাত হানেন সাকিব। এরপর প্রথম সেশনে তাইজুল তুলে নেন আরও দুই উইকেট। যে কারণে প্রথম সেশনেই মাত্র ১১ রানে চার উইকেট হারিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় দলটি।

দ্বিতীয় সেশনে সুনীল অ্যামব্রিস ও শিমরন হেটমায়ের পঞ্চম উইকেটে জুটি বাঁধেন। ৩৩ রান যোগ করে এই জুটি বিপদের কারণ ওঠছিল। বিশেষ করে শিমরন হেটমায়ের খেলছিলেন ঝড়ো বেগে। তবে বিপজ্জনক হওয়ার আগেই হেটমায়েরকে (২৭) সাজঘরে পাঠান মেহেদি হাসান মিরাজ।

এরপর ৩০ রানের মধ্যে তাইজুল একএকে আরো তিনটি উইকেট তুলে নেন। তবে অষ্টম উইকেট জুটিতে অ্যামব্রিস-ওয়ারিকান জুটি বাংলাদেশের সমর্থকদের কপালে চিন্তার ভাজ ফেলে দেন। এই উইকেটে তারা যোগ করেন ৬৩ রান। শেষ পর্যন্ত দলীয় ১৩৮ রানে ওয়ারিকানকে ফিরিয়ে দিয়ে জুটি ভাঙেন মিরাজ। দলীয় স্কোরে আর এক রান যোগ হতেই অ্যামব্রিসকে ফিরিয়ে জয় নিশ্চিত করেন তাইজুল।

ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে অ্যামব্রিস সর্বোচ্চ ৪৩, ওয়ারিকান ৪১ ও হেটমায়ের ২৭ রান করেন। আর কেউ দুই অঙ্ক ছূঁতে পারেননি। বাংলাদেশের পক্ষে দ্বিতীয় ইনিংসে মিরাজ সর্বোচ্চ ৬টি উইকেট নেন। এছাড়া দুটি করে উইকেট নেন সাকিব আল হাসান ও মেহেদি হাসান মিরাজ।

এর আগে চট্টগ্রাম টেস্টে জয়ের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ২০৪ রানের লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দেয় বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ৭৮ রানের লিড নিয়ে খেলতে নামা বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১২৫ রানে অলআউট হয়। তাই সফরকারীদের সামনে জয়ের জন্য এই লক্ষ্য নির্ধারিত হয়।

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে করে ৩২৪ রান। জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলআউট হয় ২৪৬ রানে। তাই প্রথম ইনিংসে ৭৮ রানের লিড পান সাকিব-মাহমুদউল্লাহরা। সেই লিড নিয়ে শুক্রবার দ্বিতীয় দিনেই ফের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। তবে ৫৫ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বিপর্যস্ত অবস্থায় দিনশেষ করে তারা।

সেখান থেকেই আজ তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করে বাংলাদেশ। তবে এদিন ১২৫ রানেই শেষ হয় বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংস। দ্বিতীয় ইনিংসে মাহমুদউল্লাহ সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন। ক্যারিবীয়দের পক্ষে দেবেন্দ্র বিষু সর্বোচ্চ চারটি এবং রোস্টন চেজ নেন তিনটি উইকেট।