বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় তার স্বপ্নের বাড়ি ‘মান্নাত’ তৈরি সময় বাড়ির সামনে একটি রাস্তাও নিজ উদ্যোগে তৈরি করেছিলেন। কিন্তু শাহরুখের তৈরি ওই রাস্তাটি নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের ক্ষোভ ছিল দীর্ঘদিনের।

তাদের বক্তব্য, ওই রাস্তায় প্রায়ই শাহরুখের ভ্যানিটি ভ্যান দাঁড়িয়ে থাকে। ঢালু রাস্তাটির জন্য ব্যান্ডস্ট্যান্ড থেকে মাউন্ট মেরি গির্জা যাওয়ার পথও বন্ধ থাকে। এতে তাদের খুব অসুবিধা হয়।

ফলে স্থানীয় বাসিন্দাদের অসুবিধার কথা বিবেচনা করে সম্প্রতি মুম্বাই পৌরসভা কর্তৃপক্ষ (বিএমসি) ভেঙে দেয় মান্নাতের সামনে শাহরুখের শখের রাস্তাটি। পাশাপাশি বেআইনি নির্মাণ ভেঙে ফেলার খরচ হিসেবে এবার শাহরুখের কাছে ২ লাখ টাকা দাবি করেছে বিএমসি। আগামী ৭ দিনের মধ্যে এই অর্থ দিতে হবে শাহরুখকে।

জানা গেছে, মান্নাতের সামনে শাহরুখের নিজস্ব রাস্তাটির কারণে নানা অসুবিধার কথা স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছিলেন এলাকার বিজেপি সাংসদ পুনম মহাজনকে। তিনি পৌর কমিশনার সীতারাম কুন্তেকে চিঠি লিখে বিষয়টি জানান। চিঠিতে শাহরুখের নাম না করেই তিনি সেটি ভেঙে দিতে বলেন।

কুন্তেকে পুনম চিঠিতে উল্লেখ করেন, ‘বাংলোর মালিক রাস্তাটিকে নিজের বিশাল চেহারার মোটরগাড়ি পার্ক করতে ব্যবহার করেন বলে জানা গিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অসুবিধার কথা মাথায় রেখে সেটি ভেঙে দিতে অনুরোধ করছি আপনাকে।’

এরপর মুম্বাই পৌরসভা থেকে একটি নোটিশ পাঠিয়ে শাহরুখকে বলা হয়, এক সপ্তাহের মধ্যে শাহরুখকে বেআইনি রাস্তাটি ভেঙে ফেলতে হবে আর নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে তিনি সেটি না করলে পৌরসভা নিজেরাই ব্যবস্থা নিয়ে রাস্তাটি ভেঙে দেবে। আর বিল পাঠিয়ে দেবে শাহরুখকে।

সে সময় শুটিংয়ে ব্যস্ত থাকায় শাহরুখ কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বিএমসি ভেঙে দেয় শাহরুখের তৈরি রাস্তাটি। আর রাস্তা ভাঙার খরচ হিসেবে সম্প্রতি এক সপ্তাহের মধ্যে ২ লাখ টাকা পরিশোধের দাবী করেছে তারা। বর্তমানে নেপালে শুটিংয়ে ব্যস্ত শাহরুখ জানিয়েছেন, নির্মাণ ভাঙার যাবতীয় খরচ তিনি দেবেন।