খালেদা জিয়া ভোট-নির্বাচন কিছুই চান না

0
234

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও স্থানীয় সরকারমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ভোট-নির্বাচন কিছুই চান না। তিনি সাধের পাকিস্তান জোড়া লাগাতে চান। মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মুক্তিযোদ্ধা পেশাজীবী ঐক্য মঞ্চ আয়োজিত এক সমাবেশে প্রধান অতিথি আশরাফ এ মন্তব্য করেন।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মে. জে. (অব.) হেলাল মোর্শেদ খানের সভাপতিত্বে সমাবেশে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলিকুজ্জামান, ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশের সভাপতি এ কেএম হামিদ, মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রীয় কমান্ডের মহাসচিব আবদুল মতিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 সৈয়দ আশরাফ বলেন, খালেদা জিয়া নির্বাচন চাইলে ভোটারদের পুড়িয়ে মারতেন না। এ দেশে অনেক আন্দোলন হয়েছে। খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে ভিন্ন। তিনি রাজনীতি করেন, উনার সাধের পাকিস্তান জোড়া লাগাতে চান। কিন্তু এ দেশের মানুষ এটা মেনে নেবে না।
 আশরাফ বলেন, বেগম খালেদা জিয়া বলেছিলেন তিনি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চান। আপনার চাওয়া-পাওয়ার সঙ্গে যদি জনগণের কোনো সম্পর্ক থাকে, দেশের মানুষ যদি মনে করে অবশ্যই এ দেশে জনগণের রায় বাস্তবায়ন হবে। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া গণতন্ত্র চান না। তত্ত্বাবধায়ক চান না। মধ্যবর্তী নির্বাচন চান না। তিনি বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র করতে চান। যে কারণে এই দেশকে পোড়া মাটি বানাতে চান। একাত্তরের প্রতিশোধ চান উনি। খালেদা জিয়ার আপনার আচরণে মনে হয় তিনি ছলে-বলে কৌশলে অবৈধভাবে রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল করতে চান।
 সমাবেশে উপস্থিত সকলের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আপনাদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ায় দেশ অনেকটাই স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকলে দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্র করা যাবে না। আমাদের ভয়ের কারণ নেই। আমাদের বিচলিত হওয়ার কিছু নেই। আমাদের লক্ষ্য বাংলাদেশকে সোনার বাংলা করবো।