ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেছেন, তার দেশ মধ্যপ্রাচ্যসহ সব নিপীড়িত জাতিকে সহায়তা করবে।

তিনি সুস্পষ্ট করে বলেছেন, “ইয়েমেন, বাহরাইন ও ফিলিস্তিনের জনগণ হচ্ছে নিপীড়িত জাতি এবং এসব জাতিকে আমরা যতটা পারি সহায়তা করব।” মুসলিম দেশগেুলোতে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূতদেরকে রাজধানী তেহরানে দেয়া এক সাক্ষাৎ অনুষ্ঠানে তিনি এ প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, আমেরিকা হচ্ছে সন্ত্রাসবাদের মূল পরিকল্পনাকারী, তারাই সন্ত্রাসবাদের নকশা প্রণয়ণকারী এবং মূল সমর্থক। এই আমেরিকাই আইএআইএল’র মতো বিশ্বের সবচেয়ে সন্ত্রাসীগোষ্ঠী তৈরি করেছে। এছাড়া, মার্কিন সরকার সবসময় সন্ত্রাসী ইহুদিবাদী ইসরাইলকেও সমর্থন দিয়ে আসছে।

সন্ত্রাসবাদ দমনে ইরানের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, তেহরান সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জোরালো লড়াই করেছে এবং তা অব্যাহত থাকবে। আঞ্চলিক ইস্যুতে বিশ্বের বলদর্পী শক্তিগুলোর দুষ্টনীতির বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তিনি বলেন,  কিছু মুসলিম দেশ বিভ্রান্ত হয়ে ইয়েমেনে মুসলিম হত্যায় যোগ দিয়েছে। বলদর্পী শক্তিগুলোর পক্ষে প্রক্সি যুদ্ধ করানোর জন্য এই দুষ্টুনীতি গ্রহণ করেছে তারা।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা বলেন, যারা ইয়েমেনের মুসলমানদেরকে হত্যা করছে তারা নাস্তিক বা অমুসলিমদের চেয়ে খারাপ। তিনি বলেন, পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলে নিরাপত্তা বজায় থাকা সবার জন্য লাভজনক। যদি এ অঞ্চলে অস্থিতিশীলতা দেখা দেয় তাহলে তা সবার নিরাপত্তাহীনতা ডেকে আনবে। সে জন্য সব দেশকেই এ অঞ্চলের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিতে হবে।