ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপি নেতা আবদুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে তাবিথ আউয়ালকে সমর্থন দিয়েছে বিএনপি। মনোনয়নপত্র বাতিল করে দেয়া রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আইনি লড়াই চালিয়ে মিন্টুর হারের পর বৃহস্পতিবার বিএনপির পক্ষ থেকে একথা জানানো হয়।

রাতে ‘আদর্শ ঢাকা আন্দোলনের’ আহ্বায়ক অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের বলেন,  ঢাকা উত্তরে আমরা তাবিথ আউয়ালকে প্রার্থী করছি, দক্ষিণে মির্জা আব্বাস। বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে কথা হয়েছে, তিনি এতে সমর্থন দিয়েছেন।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনে আদর্শ ঢাকা আন্দোলনের প্রার্থী হিসেবে বিএনপি নেতারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। কয়েকদিন আগেই এই ফোরাম গঠিত হয়।

ঢাকা দক্ষিণে মেয়র প্রার্থী হিসাবে বিএনপির সমর্থন পেয়েছে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগর কমিটির আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস। তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের সাঈদ খোকন। আর উত্তরে বিএনপির সমর্থন পেলেন দলের সাবেক সভাপতি আবদুল আউয়াল মিন্টুর ছেলে তাবিথ আওয়াল। সেখানে উত্তরে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের সমর্থন নিয়ে লড়ছেন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি আনিসুল হক।

ঢাকা উত্তরে বিএনপিঘনিষ্ঠ দল বিকল্প ধারার সাংগঠনিক সম্পাদক মাহী বি চৌধুরীও প্রার্থী হয়েছেন। বিএনপির সাবেক এই সংসদ সদস্য বিএনপির সমর্থনও চেয়েও পাননি।

২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় এই নির্বাচনের জন্য বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিন্টুর সঙ্গে তার ছেলে তাবিথও মনোনয়নপত্র জমা দেন। বাছাইয়ের সময় তাবিথের প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা হলেও রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহ আলম বিএনপি নেতা মিন্টুর মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। তার মনোনয়নপত্রে সমর্থক সিটি করপোরেশনের ভোটার ছিলেন না। এরপর নির্বাচন কমিশনে আপিল করে হেরে হাই কোর্টে যান মিন্টু। সেখানে হারের পর যান আপিল বিভাগে, কিন্তু বৃহস্পতিবার তার সেই আবেদনও খারিজ হয়ে যায়।

মাল্টিমোড গ্রুপের চেয়ারম্যান মিন্টুর ছেলে তাবিথ ওই গ্রুপেরই উপ প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। তিনি ১৭টি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সহসভাপতি তিনি। তাবিথের বিরুদ্ধে ঋণ খেলাপের অভিযোগ নির্বাচন কমিশনে দিয়েছিল সোনালী ব্যাংক। কিন্তু এই নির্বাচনের আপিল কর্তৃপক্ষ ঢাকার বিভাগীয় কমিশনার রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকটির ওই আবেদন খারিজ করে দেন।