অবশেষে সব জল্পনা কল্পনার অবসান! বাংলাদেশে নরেন্দ্র মোদীর সফরসঙ্গী হতে চলেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর আগে কানাঘুসো শোনা যাচ্ছিল, মোদীর সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যাবেন না। কিন্তু বৃহস্পতিবার দুপুর নাগাদ খবর মেলে, আগামী ৬জুন ঢাকার পথে তারা পরস্পরের সঙ্গী হচ্ছেন। এ ছাড়া এ সফরে আসাম ও ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী তরুন গগৈ ও মানিক সরকার তার সঙ্গী হবেন।

আশা করা হচ্ছে, এই সফরে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক আরও মজুবত হবে। শেখ হাসিনা, নরেন্দ্র মোদী এবং সেই সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই তিন ভিআইপির উপস্থিতিতে স্থলসীমান্ত চুক্তি পূর্ণ রূপ নেবে।

স্থলসীমান্ত চুক্তির জমি আরও শক্ত হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের উত্তরবঙ্গ সীমান্ত পরিদর্শনের মধ্যে দিয়ে। সেইবার অবশ্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উপস্থিত ছিলেন না। তবু তিনিই যে এই চুক্তির সেতু হিসাবে কাজ করছেন তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

আগামী ৬ ও ৭ জুন ৩৬ ঘণ্টার বাংলাদেশ সফরে আসছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী । মোদীর এই সফরে ১৫টি সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ ছাড়া দুই দেশের অমীমাংসিত ছিটমহল বিনিময় প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মমতা এই সফরে সঙ্গী হওয়ায় আলোচিত তিস্তা চুক্তি হওয়ার সম্ভাবনাও দেখা দিল।