২৭ জন প্রথমবারের মতো মন্ত্রিসভার সদস্য হতে যাচ্ছেন
২৭ জন প্রথমবারের মতো মন্ত্রিসভার সদস্য হতে যাচ্ছেন

এবারের মন্ত্রিসভায় ৩১ নতুন মুখের ঠাঁই হয়েছে। তাদের মধ্যে ২৭ জন প্রথমবারের মতো মন্ত্রিসভার সদস্য হতে যাচ্ছেন। বাকি চারজন আওয়ামী লীগ সরকারের ২০০৮ সালের মন্ত্রিসভায় মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন।
এবার প্রথম মন্ত্রী হতে যাচ্ছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের জন্য ডাক পাওয়া মো. তাজুল ইসলাম, পররাষ্ট্রের জন্য এ কে আব্দুল মোমেন, শিল্প মন্ত্রণালয়ের জন্য নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ে গোলাম দস্তগীর গাজী, খাদ্যে সাধন চন্দ্র মজুমদার, বাণিজ্যে টিপু মুনশি, গৃহায়ন ও গণপূর্তের জন্য শ ম রেজাউল করিম, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ে মো. শাহাব উদ্দিন এবং রেল মন্ত্রণালয়ে নুরুল ইসলাম সুজন। প্রথমবারের মতো প্রতিমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের জন্য ইমরান আহমদ, যুব ও ক্রীড়ায় জাহিদ আহসান রাসেল, মৎস ও প্রাণিসম্পদে আশরাফ আলী খান খসরু, নৌ-পরিবহনে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, প্রাথমিক ও গণশিক্ষায় জাকির হোসেন, জনপ্রশাসনে ফরহাদ হোসেন, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়ে স্বপন ভট্টাচার্য, পানিসম্পদে জাহিদ ফারুক, স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণে মুরাদ হাসান, সমাজকল্যাণে শরীফ আহমেদ, সংস্কৃতিতে কে এম খালিদ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণে ডা. এনামুর রহমান, বেসামরিক বিমান ও পর্যটনে মাহবুব আলী, ধর্ম মন্ত্রণালয়ে শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ এবং শিল্প মন্ত্রণালয়ে কামাল আহমেদ মজুমদার।
উপ-মন্ত্রী হিসেবে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালনের জন্য শপথ নিতে ডাক পেয়েছেন বেগম হাবিবুন নাহার, পানিসম্পদে এ কে এম এনামুল হক শামীম এবং শিক্ষায় মহিবুল হাসান চৌধুরী।
কৃষিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনে ডাক পাওয়া ড. আব্দুর রাজ্জাক আওয়ামী লীগের ২০০৯-২০১৪ মেয়াদে খাদ্যমন্ত্রী, তথ্যে ডাক পাওয়া ড. হাছান মাহমুদ একই সময়ে বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী হওয়ার জন্য আমন্ত্রিত ডা. দীপু মনি ওই আমলেই পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং শ্রম ও কর্ম সংস্থানের জন্য প্রতিমন্ত্রীর ডাক পাওয়া মন্নুজান সুফিয়ান ২০০৯-২০১৪ আমলে একই মন্ত্রণালয়ের একই দায়িত্ব পালন করেছেন।
এদিকে ৪৬ সদস্যবিশিষ্ট মন্ত্রিসভার জন্য ডাক পাওয়াদের মধ্যে টেকনোক্র্যাট কোটায় আছেন তিনজন। তাদের মধ্যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের জন্য স্থপতি ইয়াফেস ওসমান এবং আইসিটির জন্য ডাক পাওয়া মোস্তফা জব্বার গত সরকারেও একই দায়িত্ব পালন করেছেন। টোকনোক্র্যাট কোটায় অপরজন হলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ।
এদিকে নতুনদের মধ্যে কয়েকজন তরুণও মন্ত্রিসভায় স্থান পেতে যাচ্ছেন। তাদের মধ্যে এনামুল হক শামীম, মহিবুল হাসান চৌধুরী, জাহিদ আহসান রাসেল, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী প্রমুখ উল্লেখযোগ্য।