সরকার গণতন্ত্র ও নির্বাচন নিয়ে তামাশা করছে বলে অভিযোগ করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকারের কথা ও প্রতিশ্রুতির কোনো মিল নেই। পুলিশ সদর দপ্তর থেকে রাজনৈতিক মামলায় গ্রেপ্তার না করার নির্দেশনা থাকলেও তা মানা হচ্ছে না।

আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

তিনি আরো বলেন, সোমবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সারাদেশে শতাধিক নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রাজনৈতিক মামলার কোনো বিধানও আইনে নেই।

রিজভী বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে মাইনাস করার জন্যই সাজানো মামলায় প্রহসনের বিচার করে পরিত্যক্ত কারাগারে বন্দি রাখা হয়েছে। ১/১১ এর সময় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছিল ৪টি, আর শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে মামলা ছিল ১৬টি। বিএনপি চেয়ারপারসনের বিচার হলে শেখ হাসিনার কেন নয়?’।

এ ছাড়াও নির্বাচন কমিশনার শাহাদাত হোসেনের সমালোচনা করেন বিএনপির এই নেতা। তিনি বলেন, সব রাজনৈতিক দলের উদ্বেগ সত্ত্বেও সিইসি বলেছিলেন, সীমিত আকারে নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করা হবে। কিন্তু ইসি কমিশনার শাহাদাত হোসেন বলছেন, ৮০-১০০ আসনে ইভিএম ব্যবহার করা হবে। তাহলে ভোটের আর দরকার কী?

রিজভী বলেন, ‘ইভিএম আওয়ামী ভোট কারচুপির মেশিন। পরাধীন নির্বাচন কমিশন ইভিএম ব্যবহার করে ভোট ডাকাতির মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে’।