প্রধানমন্ত্রী রেফারির ভূমিকা পালন করলে তো ফেয়ার ইলেকশন হয় না : ড. কামাল
প্রধানমন্ত্রী রেফারির ভূমিকা পালন করলে তো ফেয়ার ইলেকশন হয় না : ড. কামাল

ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে তার বেইলি রোডের বাসায় সাক্ষাৎ করেছেন ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেইক। গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ৫টা ৪৫ মিনিটে কামাল হোসেনের বাসায় যান অ্যালিসন ব্লেইক। সন্ধ্যা ৬টা ২৩ মিনিটে তিনি সেখান থেকে বেরিয়ে যান।

হাইকমিশনারের সাথে সাক্ষাতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন বর্তমান দলীয় সরকারের অধীনে কোনো সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না।

ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সঙ্গে কোন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে জানতে চাইলে ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘তারা মাঝে মধ্যে দেখা করতে আসেন। দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিষয়ে তারা জানতে চেয়েছেন। বিশেষ করে আগামী নির্বাচনকে আমরা কিভাবে দেখছি এবং কী ধরনের নির্বাচন হতে যাচ্ছে, হাইকমিশনার তা জানতে চেয়েছেন।

জবাবে আমরা বলেছি, ‘আমরা অবাধ ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চাইছি। এখনও আমাদের একই দাবি, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চাইছি। সেই লক্ষ্যে সাত দফা দাবিও দিয়েছি।’
তিনি আরো বলেন, ‘আগে আমাদের নির্বাচনে তত্ত্বাবধায়ক সরকারব্যবস্থা ছিল। তারপর একটি জাজমেন্ট দিয়ে তা সরিয়ে দেয়া হয়। এরপর থেকেই সমস্যা হচ্ছে।’

হাইকমিশনারের কাছে ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ১৫৪ জন বিনা ভোটে নির্বাচিত হওয়ার বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে জানিয়ে ড. কামাল বলেন, ‘৫ জানুয়ারির পর নির্বাচিত সরকার না থাকার কারণে দেশের অনেক ক্ষতি হয়েছে। তারাই (বর্তমান সরকার) বলেছিল ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর দ্রুততম সময়ের মধ্যে একটি নির্বাচন দেয়া হবে। সেই দ্রুততম সময় পাঁচ বছরে শেষ হয়েছে।’

কামাল হোসেন আরো বলেন, ‘নিরপেক্ষ সরকার মানেই হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী কোনো ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারবেন না। প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী যদি রেফারির ভূমিকা পালন করেন, পুলিশ প্রশাসন যদি নিরপেক্ষ না থাকে তাহলে তো ফেয়ার ইলেকশন হয় না।’