গত শিক্ষাবর্ষে যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়া বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর হার বেড়েছে ৪ দশমিক ৯ শতাংশ। ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে সেদেশে পড়তে গেছে ৭ হাজার ৪৯৬ জন শিক্ষার্থী। আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে এ বৃদ্ধির গড় হার এখন ১ দশমিক ৫ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে। ইন্টারন্যাশনাল এডুকেশনাল এক্সচেঞ্জ বিষয়ক ‘ওপেন ডোরস রিপোর্ট-২০১৮’ এ তথ্য ওঠে এসেছে।

উচ্চশিক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে শিক্ষার্থী পাঠানোর দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান এখন বিশ্বে ২৪তম। আর স্নাতক পর্যায়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যার দিক দিয়ে অবস্থান ১০ নম্বরে। গত ছয় বছরে যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনা করা বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ৫৮ দশমিক ৪ শতাংশ।

গত তিন বছরে যুক্তরাষ্ট্রের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ১০ লাখের বেশি বিদেশি শিক্ষার্থী ছিল। চলতি শিক্ষাবর্ষে তা ১০ লাখ ৯০ হাজারে ওঠে যা একটি রেকর্ড। পাশাপাশি, যুক্তরাষ্ট্রের উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে টানা ১২ বছর ধরে বিদেশি শিক্ষার্থী বৃদ্ধির হার অব্যাহত রয়েছে।

বাংলাদেশের কয়েকটি স্থানে ‘এডুকেশনইউএসএ’ পরামর্শ সেবা ও রেফারেন্স সামগ্রী পাওয়া যায়। এর মধ্যে রয়েছে বারিধারায় অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের আমেরিকান সেন্টার, ধানমন্ডিতে অবস্থিত এডওয়ার্ড এম কেনেডি সেন্টার ফর পাবলিক সার্ভিস অ্যান্ড দ্য আর্টস এবং চট্টগ্রামের আমেরিকান কর্নার।

এসব স্থানে প্রশিক্ষিত পরামর্শকরা দলভিত্তিক তথ্য অধিবেশন পরিচালনা করেন এবং আগ্রহী শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের জন্য পৃথক কাউন্সেলিং সার্ভিস দেন। এছাড়া সিলেট, খুলনা ও রাজশাহীর আমেরিকান কর্নারে এডুকেশনইউএসএ রেফারেন্স লাইব্রেরি ও ‘দূর পরামর্শ’ পাওয়া যায়।