॥তাজুল ইসলাম নাজিম ॥
১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ বাঙ্গালী জাতির জন্য এক ঐতিহাসিক দিন। এদিন বাঙ্গালী জাতির মহান নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ডাকে ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমানে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে) এক বিশাল জনসভা করা হয়। ১৯৭০ সালের প্রাদেশিক নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ১৬৯টি আসনের মধ্যে ১৬৭ আসনে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হলেও পাকিস্তানি জান্তা সরকার ক্ষমতা হস্তান্তর না করে গড়িমসি করতে থাকে।

এর পর থেকেই একের পর এক আলোচনার নাম করে জান্তা সরকার তাদের ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতে থাকে। এদিকে বঙ্গবন্ধুরনেতৃত্বে চলতে থাকে বাঙ্গালীর আন্দোলন। তারই ধারাবাহিকতায় ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে জনসমাবেশ ডাকা হয়। সেদিনের সেই জনসমাবেশ জনসমুদ্রে পরিনত হয়েছিল। ৭ই মার্চের জনসভায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙ্গালী জাতির মুক্তিযুদ্ধের চুড়ান্ত ঘোষণা না দিলেও বাঙ্গালী জাতিকে দিয়েছিলেন মুক্তিযুদ্ধের দিক নির্দেশনা। তাঁর ঐতিহাসিক বাণী “তোমাদের যার যা আছে তা নিয়েই শত্রুর মোকাবেলা করবে। এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম আমাদেরস্বাধীনতার সংগ্রাম” যা আজওপ্রতিটি বাঙ্গালীর হৃদয়েকে শিহরিত করে তুলে।স্বাধীনতার পর থেকে প্রতিবছরবাংলাদেশ আওয়ামীলীগ বাঙ্গালী জাতির এক ঐতিহাসিক দিন হিসেবে দিনটিকে পালন করে আসছে।

unnamed

এদিকে আজ ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ
উপলক্ষে রাঙ্গামাটি কলেজ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভার পূর্বে কলেজ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।
মিছিলটি কলেজ ক্যম্পাসের
চারদিকে প্রদক্ষিণ করে ক্যম্পাস থেকে বের হয়ে সদর উপজেলা চত্ত্বর পর্যন্ত গিয়ে আবার কলেজের শহীদ মিনার চত্বরে এসে শেষ হয়।

এরপর এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় বক্তারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের আলোচনার পাশাপশি বিএনপি- জামায়াতের
কঠোর সমালোচনা করেন।বিএনপি-
জামায়াতকে সন্ত্রসের রাজনীতি ছেড়ে সুষ্ঠ ধারার রাজনীতি করার আহবান করা হয়। অন্যথায় বাংলার মাটি থেকে তাদের সমূলে উৎখাত করা হবে।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গামাটি জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহ
এমরান রোকন, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গামাটি জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সাইদুল, সহ- সভাপতি জামাল উদ্দিন, সহ-প্রচার সম্পাদক রুবেল চৌধুরী, শহর শাখার সভাপতি অপূর্ব বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম রাশেদ, রাঙ্গামাটি কলেজ ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক
হামিদুল ইসলাম হামিদ, পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর রব, সাংগঠনিক সম্পাদক সুলতান
মাহমুদ বাপ্পাসহ কলেজ ছাত্রলীগের অসংখ্য নেতৃবৃন্দ। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন রাঙ্গামাটি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি সজল
দাশ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন
রাঙ্গামাটি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর জব্বার সুজন।