মহাকাশে উৎক্ষেপণের এক ঘণ্টা ১০ মিনিট পর থেকেই বঙ্গব্ন্ধু স্যাটেলাইট-১ থেকে টেলিমেট্রি সংকেত পাওয়া যাচ্ছে গাজীপুরের গ্রাউন্ড কন্ট্রোল স্টেশন থেকে।

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস স্টেশানের উৎক্ষেপণ মঞ্চ থেকে বঙ্গব্ন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণের ৩০ মিনিট পর যখন কক্ষ পথে পৌঁছায়; এর ৪০ মিনিট পরই সংকেত পায় ইটালি, কান এবং গাজীপুরে স্থাপিত গ্রাউন্ড স্টেশন।

স্যাটেলাইটটি সচল আছে। এখন পর্যন্ত এর কোনো সমস্যা দেখা যায়নি। ৩৬ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে এটি তার নির্ধারিত স্থানে পৌঁছাবে।

বঙ্গব্ন্ধু স্যাটেলাইট-১ গ্রাউন্ড স্টেশনের নেটওয়ার্ক প্রকৌশলি তাজুল ইসলাম বলেন, ‘গতকাল আমাদের স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপণ করা হয়েছে। উৎক্ষেপণের আধা ঘণ্টা পর অরবিটে পৌঁছায়। তার ৪০ মিনিট পর আমরা এখানে টেলিমেট্রিটা পাই। টেলিমেট্রি পাওয়া মানে হচ্ছে, আমরা স্যাটেলাইটের সঙ্গে যুক্ত হলাম। স্যাটেলাইট সুস্থভাবে আছে, ভালোভাবে আছে এবং তার কক্ষপথে সে যাচ্ছে।’

‘এর পরবর্তী পদক্ষেপ হচ্ছে, ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমায়ংশে যে জায়গাটা কেনা আছে সেখানে পৌঁছাতে সাত থেকে ১০ দিন সময় লাগবে। এটা আটদিনও হতে পারে, নয়দিনও হতে পারে। এটা হওয়ার পর আমরা বাকি ধাপগুলো শুরু করব।’

প্রকৌশলী তাজুল ইসলাম আরো বলেন, ‘এখান থেকে আমরা হয়তো তিন মাস পর থেকে কার্যক্রম শুরু করতে পারব। স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু ১-এ ৪০টি ট্রান্সফোল্ডার আছে। এর মধ্যে ২৬টি কেইউ-ব্রান্ডের আর সি-ব্রান্ডের ১৪টি। এ ছাড়া রিডারনেনসি ছয়টি ট্রান্সপোল্ডার আছে। অন্যগুলো যদি কখনো অকার্যকর হয়ে যায় তাহলে এই ছয়টি রিডারনেনসি ব্যবহার করা যাবে।’