ফ্রান্স-মে-দিবস-র‌্যালি-সংঘর্ষ-অর্থনৈতিক-সংস্কার-ইমানুয়েল-ম্যাক্রোঁ-rtvonline-france-may-day-rally-violence-economic-reform-emmanuel-macron

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে মে দিবসের শোভাযাত্রা থেকে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। এদিন রাজধানীতে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর অর্থনৈতিক সংস্কারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে পুলিশের সঙ্গে শ্রমিক ইউনিয়নকর্মীদের সংঘর্ষ হয়েছে।

বিক্ষোভকারীরা দোকানের জানালা ভাঙাসহ বেশ কয়েকটি গাড়িতে আগুন দেয়। এ সময় এক পুলিশ অফিসারসহ চারজন আহত হয়েছেন।

প্যারিস পুলিশ প্রধান মাইকেল দেলপুয়েচ- এর বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, এ ঘটনায় ২০০ বিক্ষোভকারীকেআটক করা হয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর পাবলিক সেক্টরে শ্রমিকদের মর্যাদা পুনর্গঠনের বিরোধিতা করে মিছিল করে শ্রমিক ইউনিয়ন। ব্লাক ব্লক্স নামে পরিচিত বামপন্থী এনার্কিস্ট গ্রুপ মুখোশ পরে ওই বিক্ষোভে ঢুকে পড়ে সহিংসতার ঘটনা ঘটায়।

পুলিশ বলছে, শ্রমিক সংগঠনের বার্ষিক ১ মে বিক্ষোভ সমাবেশে প্রায় ১ হাজার ২০০ জন ছদ্মবেশী এবং হুড বিক্ষোভকারীরা অংশগ্রহণ করেন। এ সময় সহিংসতায় চারজন আহত হয়েছেন।

কালো রংয়ের পোশাক পরিহিত বিক্ষোভকারীরা রাস্তার আশেপাশের দোকানপাটের জানালা ভাঙচুর ছাড়াও ম্যাকডোনাল্ডসের একটি দোকানে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুন দেওয়া হয় বেশ কয়েকটি গাড়িতে। একটি গাড়ির দোকানেও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস, টিয়ারসেল, স্প্রে ও জলকামান ব্যবহার করে পুলিশ।

বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থান করা প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ এক টুইট বার্তায় এই সংঘর্ষের নিন্দা জানিয়ে লিখেছেন, আজকের যে মে দিবসের মিছিলে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে আমি খুব দৃঢ়ভাবে এর নিন্দা জানাই। অপরাধীদের শনাক্ত করতে সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হবে। আর এ ঘটনায় দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।